বিমানের আবর্জনার বস্তায় চোরাই সোনা! সিলেটের বিমানবন্দরে উদ্ধার কোটি টাকার সামগ্রী

05:05 PM Jul 26, 2022 |
Advertisement

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বিমানের ভিতরে আবর্জনার বস্তা। আর তার মধ্যেই লুকিয়ে কালো সম্পদ। বাংলাদেশের (Bangladesh) সিলেট বিমানবন্দরে অবতরণের পর একটি উড়োজাহাজের ডাস্টবিন থেকে উদ্ধার হল ১০ টি সোনার বার! যা দেখে তাজ্জব শুল্ক দপ্তরের কর্তারা। মঙ্গলবার সকালে সিলেটের এম এ জি ওসমানি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে এই সোনা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এর বাজারমূল্য ১ কোটি টাকা।

Advertisement

ওসমানি বিমানবন্দরের শুল্ক (Customs) বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ বিমানের বিজি-২২৬ ফ্লাইটে করে চোরাচালানের মাধ্যমে বাংলাদেশে সোনা নিয়ে আসা হচ্ছে বলে গোপনে খবর আসে। এই অবস্থায় সকাল সাতটা নাগাদ বিমানটি অবতরণ করে। যাত্রীদের তল্লাশি করা হয়। তবে তাঁদের কারও কাছে চোরাচালানের কোনও সোনা পাওয়া যায়নি।

[আরও পড়ুন: খুদের শ্বাসনালীতে আটকে ছিল খোলা সেফটিপিন, জটিল অস্ত্রোপচারে প্রাণ বাঁচাল রাজ্যের হাসপাতাল

এভাবে ঘণ্টাখানেক কেটে যায়। কিন্তু সোনার খোঁজ মেলে না। এরপর সকাল আটটার দিকে উড়োজাহাজটির ভিতরে থাকা আবর্জনার বস্তাটি স্ক্যান করা হয়। শুল্ক দপ্তরের সেই স্ক্যানিংয়ে ধরা পড়ে ধাতব পদার্থের উপস্থিতি। বিমানবন্দরে কর্মরত বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে সেই আবর্জনার বস্তা থেকে ধাতব পদার্থটি বের করা হয়। সাদা-কালো স্কচটেপে মোড়ানো অবস্থায় ১০টি সোনার বার (Gold bars) ওই বস্তা থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: গুজরাটে বিষমদে মৃত্যু অন্তত ২৮ জনের, খুনের অভিযোগ দায়ের করল পুলিশ]

শুল্ক দপ্তরের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, মোট ১০টি সোনার বারের ওজন হবে ১ কেজি ১৬০ গ্রাম, দাম প্রায় এক কোটি টাকা। ওসমানি বিমানবন্দরের শুল্ক বিভাগের উপকমিশনার মহম্মদ আল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা করার প্রস্তুতি চলছে। কারা এই সোনার বারগুলো এনেছে কিংবা কাদের এগুলো বের করে নেওয়ার প্রস্তুতি ছিল, এটা পুলিশ তদন্ত করে দেখতে পারে।

Advertisement
Next