চার স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ, রাগে ঘটককে কুপিয়ে খুন যুবকের!

01:18 PM Sep 23, 2022 |
Advertisement

সুকুমার সরকার, ঢাকা: একে একে চার স্ত্রী ঘর ছেড়েছে। যার ক্ষোভ গিয়ে পড়েছিল ঘটকের উপর। স্ত্রী হারানোর রাগে-দুঃখে ঘটককেই কুপিয়ে খুন করল যুবক! চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের (Bangladesh) টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইলে। নিহত ঘটকের নাম আবদুল জলিল।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত যুবকের নাম মহম্মদ আলমাস। তার বয়স ২৫ বছর। আলমাস স্থানীয় একটি করাত কলে কাজ করত বলে খবর। বিয়েও করেছিলেন। বিচ্ছেদের যন্ত্রণা বারবার ফিরে এসেছে তার জীবনে। একে একে তিন স্ত্রী তাকে ছেড়ে গিয়েছেন। ২০১৯ সালে আবদুল জলিল আলমাসের জন্য পাত্রীর খোঁজ আনেন। বিয়েও হয়। চতুর্থ-স্ত্রীর সঙ্গে ভালই চলছিল। তাদের একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে। ২০২১ সালে চতুর্থ স্ত্রীও আলমাসের সঙ্গে বিচ্ছেদ করে চলে যান। এতেই আলমাসের রাগ গিয়ে পড়ে ঘটকের উপর। যার জেরে খুনের ঘটনা।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: Anubrata Mandal: ফের অনুব্রতকন্যাকে নোটিস সিবিআইয়ের, এবার ব্যবসা সংক্রান্ত নথি তলব]
Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

মৃতের আত্মীয় বলেন, “আমার মামা আবদুল জলিল ঘটকালি করে ২০১৯ সালে রসুলপুর ইউনিয়নের প্যাঁচার আটা গ্রামে আলমাসকে বিয়ে দেন। দম্পতির কন্যা সন্তানও আছে। কিন্তু ২০২১ সালে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তাঁদের। এতেই আলমাস রেগে যায় মামার উপর।” জানা গিয়েছে, এদিন নামাজ শেষে আলমাস দাদি আয়াতন বেগমের ঘরে পান খেতে বসেন। আলমাস ঘরে ঢুকে বউ এনে দেয়ার কথা বলে কথা কাটাকাটি শুরু করে। এক পর্যায়ে ঘরে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে ঘটকের মাথা ও গলায় কোপ দেয়। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার বলেন, “দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।”

[আরও পড়ুন: গরু পাচার মামলায় এবার CID’র স্ক্যানারে এনামুলের ৩ ভাগ্নে, জারি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা]

Advertisement
Next