Advertisement

করোনা টিকা আমদানি ও প্রয়োগ করতে পারবে বাংলাদেশের বেসরকারি সংস্থাগুলিও

01:32 PM Jan 15, 2021 |

সুকুমার সরকার, ঢাকা: করোনার প্রতিষেধক সংক্রান্ত বড় সিদ্ধান্ত নিল বাংলাদেশ (Bangladesh) প্রশাসন। এবার শর্তসাপেক্ষে করোনা ভ্যাকসিন আমদানি ও প্রয়োগ করতে পারবে আন্তর্জাতিক স্তরে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত দেশের বেসরকারি সংস্থাগুলি।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: ভারতে বাড়ছে বার্ড ফ্লু সংক্রমণ, বিপদ রুখতে হাঁস, মুরগি আমদানি বন্ধ করল বাংলাদেশ]

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকে এক বৈঠকের পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহেদ মালিক বলেন, “আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত দেশের বড় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলি শর্তসাপেক্ষে করোনা ভাইরাসের টিকা আমদানি করতে পারবে। তবে এর আগে টিকা আমদানি ও তার প্রয়োগ কীভাবে হবে, তা নিয়ে একটি গাইডলাইন তৈরি করবে সরকার। সরকারিভাবে টিকা প্রদান শুরু করার পর বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু করতে পারবে।” তিনি আরও বলেন, “প্রতিষেধক সংক্রান্ত সরকারের নয়া গাইডলাইনে বেসরকারি সংস্থাগুলির জন্য কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম তৈরি করা হবে। সেখানে, কোন হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মাধ্যমে টিকা দেওয়া যাবে তা বলা থাকবে। এছাড়া, তারা কীভাবে ভ্যাকসিন দেবে, কীভাবে হিসাব রাখবে, কত দামে দেবে, এ বিষয়গুলিও সরকার ঠিক করে দেবে। এ ছাড়া করোনা টিকা রাখার স্টোরেজের নিরাপত্তায় থাকবে পুলিশ বা আনসার। টিকা যেখানে রাখা হবে, সেখানে ফ্রিজ যেন সঠিকভাবে চালু থাকে, বিদ্যুৎ যেন ঠিকমতো থাকে, সেদিকেও নজর রাখা হবে।”

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, ২৫ বা ২৬ জানুয়ারি ভারত থেকে ভ্যাকসিনের প্রথম চালান দেশে আসবে। সেগুলি যথাস্থানে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ২৬ জানুয়ারি থেকে অনলাইন অ্যাপের মাধ্যমে টিকা নেওয়ার জন্য নাম নথিভুক্ত করা যাবে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ভ্যাকসিন আমদানি প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, এ জন্য সরকার একটি মূল্য নির্ধারণ করে কোথায় টিকা সরবরাহ করা হবে, তা জানিয়ে দেবে। উল্লেখ্য, বাংলাদেশকে করোনার ভ্যাকসিন দিচ্ছে ভারত (India)। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ফর্মুলায় তৈরি ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের (SII) প্রতিষেধক ‘কোভিশিল্ড’ পাঠানো হবে প্রতিবেশী দেশে। কোভিড-১৯ (COVID-19) পজিটিভ রোগীদের শনাক্তকরণের কাজ, মৃত্যুহার ওঠানামার মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকার খুবই সতর্ক। তারই মধ্যে দেশে শুরু হবে টিকাকরণের (Corona vaccine) কাজ। এই পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় এবার শিগগিরই আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে ‘কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টাস্ক ফোর্স’। এর মাধ্যমে ধাপে ধাপে দেশের ৮০ শতাংশ মানুষকে দেওয়া হবে করোনার টিকা। এমনই খবর বাংলাদেশের (Bangladesh) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে।

[আরও পড়ুন: সন্ত্রাস মোকাবিলায় এবার একসঙ্গে কাজ করবে ভারত ও বাংলাদেশের পুলিশ]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next