বিয়ের মণ্ডপে হাজির একসঙ্গে দুই প্রেমিকা! একসঙ্গে বিয়ে করে চমকে দিলেন বাংলাদেশি যুবক

05:26 PM Apr 22, 2022 |
Advertisement

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ঢাক-ঢোল পিটিয়ে ঘটা করে দুই প্রেমিকাকে একসঙ্গে বিয়ে করে চমকে দিলেন বাংলাদেশের (Bangladesh) যুবক রোহিনী চন্দ্র বর্মণ রনির। এই বিয়ের ঘটনায় তিন পরিবারের কারও কোনও অভিযোগ নেই। তবে এলাকায় তুমুল চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। পঞ্চগড়ের আটোয়ারি উপজেলার বলরামপুর-লক্ষীদ্বার গ্রামে রনির বাড়িতে আনুষ্ঠানিকভাবে দুই বিয়ে একসঙ্গে সম্পন্ন হয়। রনি ওই এলাকার যামিনীচন্দ্র বর্মনের ছেলে।

Advertisement

Advertising
Advertising

স্থানীয় সূত্রে খবর, বছর কুড়ির তরুণী ইতি রানির সঙ্গে রোহিনী চন্দ্র বর্মন রনির প্রেমের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। প্রেম চলাকালীন তাঁরা গোপনে মন্দিরে গিয়ে বিয়ে (Marry) করেন। বিয়ের বিষয়টি এতদিন গোপন রেখেছিলেন দু’জনেই। এর কিছুদিন পর নতুন করে মমতা রানি নামে আরেক তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে রনির। মমতার সঙ্গে রাতে দেখা করতে গিয়ে ধরা পড়ে যান রনি। তাতেই বিপত্তি বাঁধে।

[আরও পড়ুন: জাহাঙ্গিরপুরীতে তৃণমূল প্রতিনিধিদলকে ঢুকতে বাধা, বিভ্রান্ত করার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে]

এরপর গত ১৩ এপ্রিল মমতা ও রনির বিয়ের আয়োজনের খবর পান আগের স্ত্রী ইতি রানি। তিনি রনির বাড়ির সামনে অনশন শুরু করেন। এই অবস্থায় তিন পরিবারের উপস্থিতিতে ঘটা করেই এক বরের সঙ্গে দুই প্রেমিকার বিয়ে দেওয়া হয়। রনির বাবা যামিনীচন্দ্র বর্মন জানান, ”দু’জনকে একসঙ্গে ঘরে তুলতে আমাদের আপত্তি ছিল না। তবে আগের বিয়ের বিষয়ে যেহেতু জানা ছিল না, তাই নতুন করে আমি আবার ছেলের বিয়ের আয়োজন করেছিলাম।” ইতি রানির বাবা গিরিশচন্দ্র বলেন, ”আমাদের কোনও অভিযোগ নেই। রোহিনী চন্দ্র রনির বাড়িতে আনুষ্ঠানিক বিয়েতে আমরা তিন পরিবারের লোকজনই ছিলাম।” বলরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেনের কথায়, ”বিষয়টি শুনেছি। তবে আমার কাছে কোনও পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ আসেনি।” তিন পরিবারের কেউ কোনও অভিযোগ না করলেও ঘটনা নিয়ে 

[আরও পড়ুন: আরও এক গণধর্ষণ মামলার তদন্ত হবে দময়ন্তী সেনের অধীনে, নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্টের]

Advertisement
Next