Advertisement

বাংলাদেশে করোনা টিকার পরীক্ষা চালানোর আবেদন ভারত বায়োটেকের!

12:30 PM Jan 22, 2021 |

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বাংলাদশে (Bagladesh) নিজেদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালাতে চায় ভারত বায়োটেক। এই মর্মে আবেদনও করেছে সংস্থাটি। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে এমনটাই জানিয়েছেন বাংলাদেশ মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিলের একজন কর্তা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: লকডাউনেও বদলায়নি পরিবেশ! ফের বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরের তকমা জুটল ঢাকার]

বিতর্ক থাকলেও পড়শি ভারতে ইতিমধ্যেই ভারত বায়োটেকের তৈরি করোনার প্রতিষেধক ‘কোভ্যাক্সিন’ দেওয়া শুরু হয়েছে। টিকা গ্রহণের পর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার অভিযোগ থাকলেও বিপুল হারে চলছে প্রতিষেধক দেওয়ার কর্মযজ্ঞ। এহেন সময়ে বাংলাদেশ মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের পরিচালক মাহমুদ-উজ-জাহান রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ভারত বায়োটেকের কাছ থেকে কোভ্যাক্সিন ট্রায়ালের একটি প্রস্তাব তারা পেয়েছেন। তাদের এথিকস কমিটি আবেদনটি পর্যালোচনা করবে। এই ব্যাপারে বাংলাদেশ মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিলের এথিকস কমিটির প্রধান জাতীয় অধ্যাপক ডা. শাহলা খাতুন বিবিসিকে জানান, ভারতীয় এই কোম্পানির টিকা নিয়ে ট্রায়াল বা পরীক্ষার আবেদন তাদের কমিটিতেই আসবে। সেখানে তারা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বিষয়টি নিয়ে তাদের মতামত জানাবেন। তবে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষই নেবে। তারাই ট্রায়াল সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। 

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ভারত থেকে ঢাকায় (Dhaka) পৌঁছয় করোনা প্রতিষেধক (Corona vaccine) কোভিশিল্ড। পুণের সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি করোনা টিকার ২০ লক্ষ ডোজ উপহার হিসেবে প্রথম দফায় তুলে দেওয়া হয় বাংলাদেশের হাতে। এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ বিমানে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছয় ভ্যাকসিনের প্রথম দফার ডোজগুলি। পরবর্তীতে ঢাকা পাবে কোভিশিল্ডের ১৫ লক্ষ ডোজ। বাংলাদেশে টিকা পৌঁছনোর পরই ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর টুইটে লেখেন, করোনা টিকা ঢাকায় পৌঁছেছে। এই ভ্যাকসিন-মৈত্রী বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পুনরায় প্রমাণ করল। এবার ভারত বায়োটেকও নিজেদের তৈরি প্রতিষেধক বাংলাদেশকে দিতে আগ্রহী। সব মিলিয়ে বিপদের সময় ফের ঢাকার পাশে দাঁড়িয়েছে ‘বন্ধু’ নয়াদিল্লি।

[আরও পড়ুন: করোনা টিকা আমদানি ও প্রয়োগ করতে পারবে বাংলাদেশের বেসরকারি সংস্থাগুলিও]

Advertisement
Next