সমকাম প্রেম মেনে নেয়নি পরিবার, দুঃখে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা দুই কিশোরীর

07:41 PM May 22, 2022 |
Advertisement

সুকুমার সরকার, ঢাকা: একে অপরকে ভালবাসত দুই কিশোরী। কিন্তু সমাজ, পরিবার কেউই মেনে নেয়নি দুই সমকামী কিশোরীর প্রেম। এই প্রত্যাখ্যানে ভেঙে চুরমার হয়ে যায় তাদের স্বপ্ন। আর সেই আক্ষেপে মৃত্যুর পথই বেছে নিল ২ কিশোরী। বাংলাদেশের (Bangladesh) উত্তর জনপদ জেলা পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল গ্রামের ঘটনায়। দু’জনের ভালবাসার স্বীকৃতি দূরের কথা, লোকের বাঁকা কথায় অতিষ্ঠ হয়ে স্কুলপড়ুয়া যূথি আখতার ও শাবানা খাতুন নামের দুই ছাত্রী বিষপান (Poison) করে আত্মহত্যা করে। শনিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ এই ঘটনা ঘটে।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

মৃত যূথি আখতার হান্ডিয়ালের জয়ঘর গ্রামের জিল্লুর হোসেনের মেয়ে এবং হান্ডিয়াল বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। আর পাকপাড়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী শাবানা খাতুন পাকপাড়া গ্রামের সাকাওয়াত হোসেন সাকুর মেয়ে। শনিবার বিকেল ৪টে থেকে ৫টা পর্যন্ত পাকপাড়া সিনিয়র মাদ্রাসার বিএসসি শিক্ষক সাইফুল ইসলামের কাছে প্রাইভেট পড়তে যায় যুথী ও শাবানা। পড়া শেষে স্থানীয় একটি দোকান থেকে কীটনাশক কেনে তারা।

[আরও পড়ুন: ‘জ্ঞানবাপী মসজিদের ‘শিবলিঙ্গ’ পুজো করতে চাই’, আদালতে যাচ্ছেন কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের মোহন্ত]

পরে একসঙ্গে হান্ডিয়াল বাজারের কাছে গিয়ে ওই ট্যাবলেট খায়। এরপর বাড়ি ফিরে অস্বাভাবিক আচরণ শুরু করে তারা দু’জনই। পরিবারের লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে তাদের চিকিৎসার জন্য পাবনা সদর হাসপাতালে নিলে গেলে কিছুক্ষণের মধ্যেই যূথিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। শাবানার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে ভরতি করার পরামর্শ দেন। সেখানে যাওয়ার পথে তারও মৃত্যু হয়। চাটমোহর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সজীব শাহরিন এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। মৃতদেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

[আরও পড়ুন: ‘ফেসবুকে সংগঠন করা যায় না, মানুষের সঙ্গে থাকতে হয়’, তৃণমূলে ফিরেই বিজেপিকে তোপ অর্জুনের]

Advertisement
Next