Advertisement

‘করোনা কাটিয়ে উঠবই’, আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে শেখ হাসিনাকে চিঠি আশাবাদী মোদির

02:39 PM Jun 21, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সুকুমার সরকার, ঢাকা: করোনা জয় করার ব্যাপারে আশাবাদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)। সোমবার আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে একথা জানিয়ে বাংলাদেশের (Bangladesh) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাক চিঠি দিলেন তিনি।চিঠিতে মোদি লিখেছেন, ”আমি এখনও আশাবাদী যে মানবতার সাহায্যে এই মহামারী শিগগিরই কাটিয়ে ওঠা যাবে। এ বছর আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের প্রতিপাদ্য – সুস্থতার জন্য যোগ ব্যায়াম।” এই দিনটিকে সাফল্যমণ্ডিত করতে বাংলাদেশের অংশগ্রহণের জন্য গভীর কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন মোদি।

Advertisement

আগামী বছরগুলোতেও শেখ হাসিনা সরকার আন্তর্জাতিক যোগ দিবস (International Yoga Day) উদযাপন করবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, গত বছরের মতো এবারও করোনা মহামারীর (Coronavirus) মধ্যে দিনটি পালিত হচ্ছে। মহামারীর বিরুদ্ধে করোনা যোদ্ধারা অসাধারণ লড়াই করেছে বলে জানিয়েছেন মোদি। দেশবাসীকে মহামারীর হাত থেকে রক্ষা করতে বিনামূল্যে টিকা দেওয়া হচ্ছে বলেও চিঠিতে উল্লেখে করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: কালিয়াচক কাণ্ডের ছায়া বাংলাদেশে, ঘুমের ওষুধ খাইয়ে মা, বাবা, বোনকে খুনের পর ধৃত তরুণী]

২০১৪ সালে রাষ্ট্রসংঘের (UN) সাধারণ পরিষদে ২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আন্তর্জাতিক যোগ দিবস ঘোষণায় অভূতপূর্ব সাড়া ফেলে। তখন থেকেই ২১ জুন বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালিত হয়ে আসছে। এ বছর সপ্তম আন্তর্জাতিক যোগ দিবস। আগেরবারের মতো এ বছরও কোভিড-১৯ (COVID-19) মহামারীর প্রকোপের মধ্যেই আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালিত হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: কমেনি টাকা পাচার, সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমা অর্থের পরিমাণ ৫ হাজার ৪০০ কোটি]

নরেন্দ্র মোদি লেখেন, ”এই অবিস্মরণীয় প্রতিকূলতার মধ্যেও আমাদের কোভিড-১৯ যোদ্ধারা উল্লেখযোগ্যভাবে এই মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন। মহামারীর হুমকির মধ্যেও গত আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের পর থেকে বেশ কিছু ইতিবাচক ঘটনা ঘটেছে। বিভিন্ন চিকিৎসা পদ্ধতি ও ভাইরাস বিষয়ক বৈজ্ঞানিক গবেষণার পাশাপাশি আমাদের জনগণকে রক্ষার জন্য এখন একাধিক টিকাও রয়েছে আমাদের কাছে। আমার বিশ্বাস, মানবজাতি খুব দ্রুতই এই মহামারী কাটিয়ে উঠবে।” তাঁর চিঠির প্রাপ্তি স্বীকার করেছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর।

Advertisement
Next