Advertisement

দলবিরোধী কাজ! আলিপুরদুয়ার জেলা কমিটির প্রথম বৈঠকেই সাসপেন্ড ২ তৃণমূল নেতা

08:12 PM Nov 30, 2020 |

রাজ কুমার, আলিপুরদুয়ার: শুরুতেই ধাক্কা! নবনির্মিত জেলা কমিটির প্রথম বৈঠকেই সাসপেন্ড দলের দুই নেতা। দলবিরোধী কার্যকলাপের জন্য তাদের শোকজ করা হয়েছে। শোকজের জবাব পাওয়ার পরে দল ওই দুই নেতা সম্পর্কে ফের সিদ্ধান্ত নেবে। সোমবার আলিপুরদুয়ার (Alipurduar) শহরের রবীন্দ্র ভবনে জেলার নবনির্মিত জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের বৈঠক ছিল। এই বৈঠকে আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের মেন্টর তথা প্রাক্তন জেলা সভাপতি মোহন শর্মা-সহ বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা উপস্থিত ছিলেন না। এই বৈঠকে জেলা কমিটির সহ সভাপতি নীরঞ্জন দাসকে অপমান করা হয় বলে অভিযোগ। এই অভিযোগে এদিন বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে যান নীরঞ্জন দাস।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

বেরিয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ” বৈঠকে আমাকে অপমান অপদস্ত করা হয়েছে। আমি বলেছিলাম আশিস, মোহনের মতো নেতারা কেন বৈঠকে এলেন না তা নিয়ে আমাদের অনুসন্ধান করা উচিত। আমার কথাকে পাত্তা দেওয়া হয়নি। আমাকে বলা হয়েছে আমি বুথের কথা, পঞ্চায়েতের কথা, রাজ্যের কথা বলতে পারব না। এটা কেমন কথা। বুথ অঞ্চল বাদ দিয়ে জেলা কিভাবে হয়। আমি প্রতিবাদ করে বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছি।” এদিকে বৈঠক শেষে আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল কংগ্রেস (TMC) সভাপতি মৃদুল গোস্বামী জানিয়েছেন, দলের দুই নেতা নীরঞ্জন দাস ও ফালাকাটার সঞ্জয় দাসকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। দলবিরোধী কাজ ও দলের বিরুদ্ধে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ্যে বিবৃতি দেওয়ায় তাঁদের সাসপেন্ড করা হয়েছে বলেই গুঞ্জন। এদিন মৃদুল গোস্বামী বলেন, “দুই নেতাকে শোকজ করে সাসপেন্ড করা হয়েছে। শোকজের জবাব না পাওয়া পর্যন্ত তাঁরা দলীয় কোন কর্মসূচি ও কাজে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। শোকজের জবাব পাওয়ার পর দল ফের তাঁদের নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।”

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: কল্যাণকে নিশানা লকেটের, ‘আগামী লোকসভা তৃণমূলের হয়ে লড়বেন’, পালটা দিলেন তৃণমূল সাংসদ]

উল্লেখ্য, সম্প্রতি আলিপুরদুয়ার পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান আশিস দত্ত দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়ে সরে দাঁড়িয়েছেন। দিন দিন আশিসের বাড়িতে শুভেন্দু অনুগামীদের ভিড় বাড়ছে। এই অবস্থায় জেলা কমিটির বৈঠকে ফের আশিস দত্তের প্রসঙ্গ ওঠায় স্বাভাবিকভাবেই বিব্রত জেলা তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও বিষয়টি নিয়ে এদিন বৈঠক শেষে তৃণমূলের জেলা সভাপতি মৃদুল গোস্বামী বলেন, “আশিসবাবু নিজেই জানিয়েছেন তিনি আর দলে নেই। ফলে তাঁর  সঙ্গে আর আলোচনার বিষয় নেই। যারা আজকের বৈঠকে এলেন না বুঝতে হবে তাঁরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ে পতাকার ছায়ায় নেই। ” এদিন এই বিষয় নিয়ে আশিসবাবুকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আমি এখন আর তৃণমূলে নেই। ফলে ওই দলে কি হল না হল সেই বিষয়ে আমি কোনও মন্তব্য করব না।”

[আরও পড়ুন: ‘বাংলার ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ পর্যায় চলছে’, রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে বিস্ফোরক রাজ্যপাল]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next