Advertisement

শুভেন্দুর পর বঙ্কিম ঘোষ, জয়ী হওয়ার পরই হামলার মুখে চাকদহের বিজেপি প্রার্থী

02:15 PM May 03, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুভেন্দু অধিকারীর পর বঙ্কিম ঘোষ। নিজেদের কেন্দ্র থেকে তৃণমূল (TMC) প্রার্থীকে হারিয়ে জেতার পরই হামলার মুখে পড়তে হল এই দুই বিজেপি (BJP) প্রার্থীকে। রবিবার রাতে হলদিয়ায় শুভেন্দু অধিকারীর গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখানোর অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূল সমর্থকদের বিরুদ্ধে। প্রায় একই ঘটনা ঘটল নদিয়ার চাকদহে। রবিবার রাতে জয়ের সুখবর নিয়ে বাড়ি ফেরার পর আক্রান্ত হলেন চাকদহের বিজেপি প্রার্থী বঙ্কিম ঘোষ। রাতে তাঁর বাড়িতে ঢুকে দুষ্কৃতীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ। জানলা, দরজা ভেঙে দেওয়া হয়। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে তাঁর পরিবার। অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

Advertisement

রবিবার দিনভর হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর সন্ধে গড়ালে নন্দীগ্রাম কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষিত হয়। দেখা যায়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকে ১৯০০-র বেশি ভোট পেয়ে জিতেছেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikary)। এরপর তিনি হলদিয়ার গণনাকেন্দ্র থেকে বেরনোর সময়ে তাঁর গাড়ি ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখানো হয়। মুহর্মুহু ওঠে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান। অভিযোগ তৃণমূল কর্মী, সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। পরে নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁকে নিরাপদে বের করে নিয়ে যান।বিজেপির পালটা অভিযোগ, নিজেদের প্রার্থী হেরে যাওয়ায় বিজয়ীর উপর তৃণমূলের এই হামলা পরিকল্পিত।

[আরও পড়ুন: দক্ষিণবঙ্গে মতুয়া, উত্তরে রাজবংশীদের হাত ধরেই ‘মান’ বাঁচাল বিজেপি]

এরপর গভীর রাতের দিকে আরও এক জয়ী বিজেপি প্রার্থীর উপর হামলার খবর মেলে। হরিণঘাটা ১২ নং ওয়ার্ডে, নিজের বাড়িতেই ছিলেন চাকদহের (Chakdah) বিজয়ী বিজেপি প্রার্থী বঙ্কিম ঘোষ। অভিযোগ, এমন সময়ে আচমকা দুষ্কৃতীরা হামলা চালায় তাঁর বাড়িতে। জানলার কাচ ভাঙচুর করা হয়। তাঁর অভিযোগ, এর নেপথ্যে রয়েছে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরাই। হারের প্রতিহিংসায় এই হামলা। যদিও অভিযোগ উড়িয়ে স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর রাজীব দালালের পালটা দাবি, তৃণমূল এর সঙ্গে জড়িত নয়। রাতে আরও এক বিজেপি নেতার বাড়িতে লুটপাটের খবর মিলেছে। খড়দহের এক বিজেপি নেতার বাড়িতে ঢুকে আলমারি ভেঙে ৩ লক্ষ টাকা লুটের অভিযোগ করেন তিনি। এছাড়া পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোণা, কেশিয়াড়িতেও ছড়িয়েছে রাজনৈতিক অশান্তি।

[আরও পড়ুন: ভোটের ফলপ্রকাশের পর বিক্ষিপ্ত অশান্তি রাজ্যে, রাজনৈতিক হিংসার বলি ২]

Advertisement
Next