COVID-19: বাংলায় ফের বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, রাজ্যবাসীকে কোভিডবিধি মানার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

09:47 AM Jun 28, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত মাসেও যেখানে করোনার দৈনিক গ্রাফ একশোর নিচে নেমে গিয়েছিল, সেখানে চলতি মাসে বাংলায় লাফিয়ে বেড়েছে মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ। ঊর্ধ্বমুখী অ্যাকটিভ কেসও। এমন পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন না হয়ে রাজ্যবাসীকে কোভিডবিধি মানার পরামর্শই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

সোমবার রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন ৫৫১ জন। গতকাল যে সংখ্যাটা ছিল ৫০০-র নিচে। এর মধ্যে শুধু কলকাতাতেই একদিনে আক্রান্ত ২৪৮ জন। চিন্তায় রাখছে উত্তর ২৪ পরগনার কোভিড গ্রাফও। একদিনে সে জেলায় সংক্রমিত ১৫৯ জন। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় আক্রান্ত ৩১ জন। ফলে রাজ্যের মোট করোনা সংক্রমিতের সংখ্য়া ২০ লক্ষ ২৫ হাজার ৫২৩ জন। বর্তমানে দৈনিক পজিটিভিটি বেড়ে ৯.৫৫ শতাংশ। তবে তার মধ্যে প্রায় ৯৯ শতাংশই করোনা মুক্ত হয়ে গিয়েছেন। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় করোনায় কোনও মৃত্যু হয়নি। এ রাজ্যে মারণ ভাইরাসের বলি মোট ২১ হাজার ২১৬ জন।

[আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর সভায় প্ল্যাকার্ড হাতে হাজির TET চাকরিপ্রার্থীরা, ডেকে কথা বললেন মমতা, দিলেন আশ্বাসও]

বুলেটিন বলছে, একদিনে রাজ্যে কোভিড থেকে সুস্থ হয়েছেন ২৪৮ জন। এখনও পর্যন্ত বাংলার ২০ লক্ষ ২২৭ জন ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জয়ী। বর্তমানে সুস্থতার হার ৯৮.৭৫ শতাংশ। আপাতত হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ৩,৯২৩ জন। আর হাসপাতালে ভরতি ১৫৭ জন করোনা আক্রান্ত। এদিকে, বর্তমানে রাজ্যের সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্য়া বেড়ে দাঁড়ল ৪০৮০ জনে।

Advertising
Advertising

কোভিডবিধি উঠে গেলেও সংক্রমণ রুখতে নমুনা পরীক্ষা চলছে। একদিনে ৫ হাজার ৭৬৯ টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। টেস্টিংয়ের পাশাপাশি টিকাকরণও চলছে জোরকদমে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে ১৫ হাজার ৭৫১ জন।

এদিন বর্ধমানের জনসভা থেকে করোনা নিয়ে নতুন করে রাজ্যবাসীকে সতর্ক করেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, বাংলায় আবার আগের তুলনায় খানিকটা সংক্রমণ বেড়েছে। কিন্তু ভয়ের কোনও কারণ নেই। বরং সতর্ক থাকতে হবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগের মতোই মাস্ক পরুন। স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন। তাহলেই করোনা সংক্রমণে লাগাম টানা যাবে।”

[আরও পড়ুন: সোনিয়া গান্ধীর আপ্তসহায়কের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ, মামলা দায়ের দিল্লি পুলিশের]

Advertisement
Next