‘কাশ্মীরি পণ্ডিতের হত্যায় চুপ কেন?’ধর্মনিরপেক্ষতার প্রশ্ন তুলে বুদ্ধিজীবীদের একহাত নিলেন কঙ্গনা

09:38 PM Jun 11, 2020 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমেরিকায় যখন কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যা করা হয়েছিল, তখন তার প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন করিনা কাপুর, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া-সহ একাধিক বলিউড ব্যক্তিত্ব। তখনই কঙ্গনা রানাউত প্রশ্ন তুলেছিলেন, এইসব তারকারা কখনও দেশের সাধু খুন বা অন্য ইস্যু নিয়ে মুখ খোলেন না কেন? এদিন আবার সেই প্রশ্নই তুললেন অভিনেত্রী। দিন কয়েক আগে কাশ্মীরে জঙ্গিদের হাতে খুন হয়েছেন কংগ্রেস নেতা অজয় পণ্ডিত ভারতী। তিনি কাশ্মীরি পণ্ডিত ছিলেন। এই ইস্যু নিয়ে এখনও চুপ সেলেবরা। কেন? প্রশ্ন তুলেছেন কঙ্গনা।

Advertisement

৮ জুন, সোমবার বিকেলে নাগাদ অনন্তনাগে তাঁর বাড়ির বাইরে ঘুরছিলেন ৩৫ বছরের কংগ্রেস নেতা অজয় পণ্ডিত ভারতী। আচমকা কয়েকজন জঙ্গি এসে তাঁকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। এর জেরে রক্তাক্ত অবস্থায় ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। বিষয়টি দেখতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান প্রতিবেশীরা। কিন্তু, সেখানে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরেই মৃত্যু হয় অজয় ভারতীর। অসমর্থিত সূত্রে জানা গিয়েছে, পাকিস্তানের জঙ্গিদের সম্পর্কে নিরাপত্তারক্ষীদের তথ্য সরবরাহ করতেন অজয়। তাঁর জন্য অনেক নাশকতার ঘটনা আগেই আটকাতে পেরেছে নিরাপত্তা সংস্থাগুলি। সেই কারণেই অজয়ের উপর দীর্ঘদিন ধরে আক্রমণ চালানোর ছক কষছিল জঙ্গিরা।

[ আরও পড়ুন: এবার গুগল ম্যাপে আপনাকে রাস্তা চেনাবেন অমিতাভ বচ্চন, কীভাবে জানেন? ]

এমন এক ব্যক্তির মৃত্যু নিয়ে একটি শব্দই কি না খরচ করলেন না তারকারা! এই নিয়ে রীতিমতো ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন কঙ্গনা। বলেছেন, সমাজে যাঁরা বুদ্ধিজীবী বলে পরিচয় দেন তাঁরা আসলে সেক্যুলারিজমের মোড়কে জেহাদি অ্যাজেন্ডার কথা বলেন। যে হিন্দু ধর্ম সব ধর্মকে সম্মান করা শেখায়, জীব-জন্তুকে ভালবাসতে শেখায়, সেই হিন্দু ধর্মকে সেক্যুলারিজম শেখান তাঁরা। অথচ কাশ্মীরে যখন অজয় পণ্ডিতকে খুন করা হল, তখন তাঁরা কিছু বললেন না। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের বর্তমানে যে অবস্থা তার জন্য মুখ ফোটে না তাঁদের। এরপর কাশ্মীরে পণ্ডিতদের ফেরানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আবেদন করেন কঙ্গনা।

Advertising
Advertising

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

and the recent brutal killing of Ajay Pandit. . . . . . #KanganaRanaut #Kashmir #AjayPandit

A post shared by Kangana Ranaut (@team_kangana_ranaut) on

কঙ্গনার এই ক্ষোভের পর প্রীতি জিন্টা অশোক পণ্ডিতকে নিয়ে টুইটারে একটি পোস্ট করেন। লেখেন, অশোক পণ্ডিতের মৃত্যুতে তিনি গভীরভাবে শোকাহত। নিহত সরপঞ্চের পরিবারের প্রতি সমবেদনাও ব্যক্তি করেন প্রীতি। এই ঘটনার অবিলম্বে বিচার দাবি করেন তিনি।

The post ‘কাশ্মীরি পণ্ডিতের হত্যায় চুপ কেন?’ ধর্মনিরপেক্ষতার প্রশ্ন তুলে বুদ্ধিজীবীদের একহাত নিলেন কঙ্গনা appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next