Advertisement

বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত ভাঙড় পরিদর্শনে সাংসদ মিমি, জুতো হাতে নেমে পড়লেন কাদায়

07:41 PM Sep 20, 2021 |
Advertisement
Advertisement

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: রবিবার থেকে অবিরাম বৃষ্টির জেরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার অন্যান্য জায়গার মতোই জলে ভাসছে ভাঙড় বিধানসভার বিভিন্ন এলাকা। সোমবার বিকেলে বৃষ্টি কিছুটা কমতেই জলবন্দি এলাকা পরিদর্শনে যান যাদবপুরের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী (Mimi Chakraborty)। এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলেন। প্রয়োজনীয় কিছু সামগ্রী তাঁদের হাতে তুলে দেন। 

Advertisement

এদিন স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলতে জুতো হাতে নিয়েই কাদার উপর হাঁটতে দেখা যায় তৃণমূলের (TMC) তারকা সাংসদকে। ভাঙড়ের বেশ কয়েকটি এলাকা পরিদর্শনের পাশাপাশি নিকাশি ব্যবস্থা কীভাবে উন্নত করা যায় তা নিয়ে দলীয় নেতা ও কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন মিমি। ভাঙড়ে জমা জলের সমস্যা অনেকদিনের। খুব শিগগিরিই স্থায়ী ড্রেন তৈরি করে সেই সমস্যার সমাধান করার আশ্বাস দেন যাদবপুরের সাংসদ।

[আরও পড়ুন: ‘সতীন নিয়ে সংসার করতে রাজি’, সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করলেন যশের নতুন ‘স্ত্রী’!]

সোমবার প্রথমে ভাঙড়ের জলমগ্ন ভোজেরহাট এলাকায় যান মিমি চক্রবর্তী। সেখানকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন তিনি। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেন। তাঁদের সমস্যার কথা শোনেন। তারপর প্রায় শতাধিক দুর্গত ও শিশুর হাতে শুকনো খাবার তুলে দেন যাদবপুরের সাংসদ। বেশ কিছু ত্রিপলও দেন তিনি।

পরে ভাঙড়-১এ ব্লকের তৃণমূল সভাপতি কাইজার আহমেদ এবং সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি অহেদালি শেখকে সঙ্গে নিয়ে মিমি যান প্রাণগঞ্জ পঞ্চায়েতের মরিচা গ্রামে। সেখানেই জলবন্দি মানুষের কাছে পৌঁছতে জুতো হাতে নিয়ে কাদার উপর হাঁটতে শুরু করেন তিনি। জলমগ্ন রাস্তা পেরিয়ে পৌঁছন এলাকার মানুষের কাছে। পরে সেখান থেকে ব্যাওতা, চড়িশ্বর ও পাইকান এলাকা পরিদর্শনে যান তারকা সাংসদ। 

এদিন, এলাকার মানুষের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে মিমি বলেন, “জলবন্দিদের খবর পেয়েই কিছু শুকনো খাবার ও কিছু ত্রিপল নিয়ে ছুটে এসেছি। আগামী দিনে স্থায়ী ড্রেন তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে।”

[আরও পড়ুন: Sourav Ganguly Biopic: সৌরভের চরিত্রে পরমব্রতকে চান ক্রিকেটপ্রেমীরা, কী প্রতিক্রিয়া অভিনেতার?]

Advertisement
Next