Advertisement

বিতর্কিত ওয়েবসিরিজ ‘আশ্রম’নিয়ে বিরোধিতা, প্রকাশ ঝা’র সেটে ঢুকে তাণ্ডব বজরং দলের

11:36 AM Oct 25, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের শিরোনামে পরিচালক প্রকাশ ঝা’র বিতর্কিত ওয়েবসিরিজ ‘আশ্রম’ (Aashram)। রবিবার রাতে শুটিং চলাকালীন পরিচালকের সেটে ঢুকে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ উঠল বজরং দলের (Bajrang Dal)সদস্যদের বিরুদ্ধে। ক্রু মেম্বারদের মারধরের পাশাপাশি পরিচালকের মুখে কালি ছেটানো হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। মধ্যপ্রদেশের ভোপালে এই মুহূর্তে শুটিং চলছে ‘আশ্রম-৩’এর শুটিং। সেখানেই হামলার মুখে পড়েন প্রকাশ ঝা’র টিম। এখনও এ নিয়ে থানায় কোনও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি তিনি। তবে ঘটনার পর পুলিশ তাঁর নিরাপত্তা বাড়িয়েছে। আপাতত শুটিং বন্ধ।

Advertisement

২০২০ সালের আগস্টে ‘আশ্রম’ সিরিজের প্রথম পর্ব প্রকাশ্যে এসেছিল। সিরিজে মূলত ‘‌বাবা নিরালা’‌ অর্থাৎ ববি দেওল (Bobby Deol) অভিনীত চরিত্রকে নিচু জাতের মানুষের ত্রাতা হিসেবে দেখানো হয়েছিল। কিন্তু সিরিজ যত এগিয়েছে, তত তাঁর ভালমানুষির মুখোশ খুলতে শুরু করেছিল। নিজের ভক্ত ‘সত্তি’র সুন্দরী স্ত্রী ববিতাকে নেশায় আচ্ছন্ন করে তাঁকে ধর্ষণ করে মন্টি ওরফে বাবা নিরালা। এসব কাহিনিই তুলে ধরা হয় ‘আশ্রম চ্যাপ্টার ২’তে। স্বঘোষিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিমের আদলে ‘বাবা নিরালা’ চরিত্রটিকে তুলে ধরা হয়েছে বলে মত বহু দর্শকের। আর এসব বিষয় হিন্দুধর্মের ভাবাবেগে আঘাত – এই অভিযোগ ঘিরে বিতর্কের শীর্ষে ছিল সিরিজটি।

[আরও পডুন: মাদক মামলায় তথ্য লুকোতে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ডিলিট করেছেন অনন্যা পাণ্ডে!]

এবার ‘আশ্রম’-এর সিজন ৩’র পালা। তারই শুটিং চলছিল ভোপালে (Bhopal)। রবিবার রাতে সেখানেই হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী। তারা সকলেই বজরং দলের সদস্য বলে জানা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ‘ববি দেওলকে চাই’, এই হুমকি দিতে দিতে সেটে ঢুকে পড়ে হামলাকারীরা। তারপর ক্রু-র একজনকে লাইটের স্ট্যান্ড দিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়। অশান্তির খবর পেয়ে প্রকাশ ঝা নিজে পরিস্থিতি বুঝতে বেরিয়ে এলে, তাঁর মুখে কালি ছিটিয়ে দেওয়া হয়। তাণ্ডব চলাকালীন দুষ্কৃতীরা ক্রমাগত স্লোগান দিতে থাকে – ‘প্রকাশ ঝা মুর্দাবাদ/ববি দেওল মুর্দাবাদ/ জয় শ্রীরাম’। আরও জানা গিয়েছে, সিরিজটির নাম বদলের জন্য পরিচালক ঝা’কে হামলাকারীরা বারবার চাপ দিতে থাকে। সূত্রের খবর, তিনি নামবদলের আশ্বাস দিয়েছেন।

[আরও পডুন: Aryan Khan Case: ‘আমাকে যেন ফাঁসানো না হয়’, ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উড়িয়ে পুলিশকে চিঠি সমীর ওয়াংখেড়ের]

এমন নিন্দনীয় ঘটনার পর আবার বিবৃতিও দিয়েছে বজরং দল। দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেতা সুশীল সুরহেলের কথায়, ”উনি আশ্রম ১, আশ্রম ২’র পর আশ্রম ৩ বানাচ্ছেন। সেখানে দেখানো হয়েছে, একজন ধর্মগুরু মহিলাদের হেনস্তা করছেন। চার্চ কিংবা মসজিদ নিয়ে এরকম একটা সিরিজ বানানোর সাহস আছে ওঁর? নিজেকে কী মনে করেন?” তিনি এও জানান, ”আমরা প্রকাশ ঝা’কে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছি। আমরা ববি দেওলকে খুঁজছি। ওঁর উচিত দাদা সানির থেকে কিছু শেখার।” প্রসঙ্গত, সানি দেওল পাঞ্জাবের গুরদাসপুরে বিজেপি সাংসদ।

এই প্রথম নয়। গত বছর সিরিজটি (Web Series) প্রকাশ্যে আসার পর হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ তুলে যোধপুর আদালতে প্রকাশ ঝা ও ববি দেওলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন জনৈক আইনজীবী। তার পরিপ্রেক্ষিতে তাঁদের আইনি নোটিসও পাঠানো হয়। সবমিলিয়ে সিরিজটি ঘিরে প্রশংসার পাশাপাশি যথেষ্ট কটাক্ষ, ক্ষোভও দানা বাঁধছিল। তারই প্রতিফলন ঘটে গেল রবিবার রাতে, ভোপালে।

Advertisement
Next