কঙ্গনার অভিশাপেই ঘর ভাঙছে উদ্ধব ঠাকরের! জোর চর্চা নেটদুনিয়ায়

12:42 PM Jun 24, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একেই বলে হয়তো ধর্মের কল বাতাসে নড়ে! অন্তত বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut) ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে ব্যাপারে এক কথা একশো শতাংশ খেটে যায়।

Advertisement

ব্যাপারটা একটু বিশদে বলা যাক। এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক অবস্থা বেশ টালমাটাল। যত সময় যাচ্ছে দলে ততই যেন নিঃসঙ্গ হচ্ছেন উদ্ধব ঠাকরে । একে একে বিধায়করা তো সঙ্গ ছাড়ছেনই, সাংসদরাও ধীরে ধীরে ভিড়ে যাচ্ছেন একনাথ শিণ্ডের দলে। যা পরিস্থিতি, তাতে কোনও ম্যাজিক মিরাকল না হলে উদ্ধবের গদি বাঁচা মুশকিল। বুধবার রাতে নিজের বাড়ি ছেড়ে পৈতৃক বাড়িতে চলে এসেছেন উদ্ধব। নেটিজেনরা বলছেন, কঙ্গনার অভিশাপেই নাকি এসব ঘটছে।

আসলে, দু’বছর আগে বিএমসির তরফ থেকে বেআইনি নির্মাণের কারণ দেখিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল কঙ্গনার অফিসের একাংশ। তখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় উদ্ধব ঠাকরেকে একহাত নিয়ে ছিলেন কঙ্গনা। সেই ভিডিওতে কঙ্গনা বলেছিলেন, ‘উদ্ধব ঠাকরে তোর কী মনে হয়? ফিল্ম মাফিয়াদের সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতিয়ে এরকমটা করলি। আজ আমার ঘর ভেঙেছে, কাল তোর অহংকার ভাঙবে। এটা সময়ের চাকা, মনে রাখিস।’

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: প্রেমিকা নিখোঁজ! তদন্তে পুলিশ অফিসার রাজকুমার রাও, ‘হিট’ ছবির ট্রেলারে রহস্য ]

মহারাষ্ট্রের টালমাটাল রাজনৈতিক পরিস্থিতির মধ্যেই ফের ভাইরাল হয়েছে কঙ্গনার এই ভিডিও। নেটিজেনদের কথায়, কঙ্গনার অভিশাপেই এমন অবস্থা।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাতে শিণ্ডে (Eknath Shinde) শিবিরের তরফে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। সেখানে দাবি করা হয়, শিব সেনার ৪২-সহ তাঁদের কাছে মোট ৪৯ জন বিধায়ক রয়েছেন। একটি ভিডিওতে গুয়াহাটির হোটেলে বিজেপির হেফাজতে থাকা অনুগামী বিধায়কদের উদ্দেশে‌ শিণ্ডেকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘একটি জাতীয় দল আমাদের সমর্থন দিচ্ছে। তারা বলেছে আমাদের একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সবার সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সবার মত চাওয়া হবে।’ শুক্রবার আবার তিনি দাবি করেছেন, বিধায়ক সংখ্যা বেড়ে ৫০ হয়েছে। শুধু বিধায়করা নন, শিণ্ডের শিবিরে এবার যোগ দিচ্ছেন সাংসদরাও। সূত্রের দাবি, অন্তত ৯ জন শিব সেনা সাংসদও শিণ্ডে শিবিরে যোগ দেবেন। তার মধ্যে জনা কয়েক ইতিমধ্যেই গুয়াহাটি পৌঁছে গিয়েছেন।

এই অবস্থায় শিব সেনার (Shiv Sena) মুখপাত্র তথা দলের সাংসদ সঞ্জয় রাউত বিদ্রোহী গোষ্ঠীর উদ্দেশে বলেন, “যদি আপনাদের সমস্যা নেতৃত্ব নয় জোট সরকার হয়, যদি আপনারা শিব সেনা ছাড়বেন না বলছেন, তাহলে আমরা মহা বিকাশ আগাড়ি (MVA) থেকে বেরিয়ে আসতে রাজি। কিন্তু তার আগে সামনে আসার সাহস দেখান। আর এসে উদ্ধব ঠাকরের সামনে নিজেদের শর্ত রাখুন। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ফিরলে দাবি নিয়ে ভাবনাচিন্তা হবে।” পালটা শিণ্ডে শিবির জানিয়ে দিয়েছে, তাঁদের সঙ্গে ৫০ বিধায়ক রয়েছে। তাই ফেরার কোনও কারণই নেই।

[আরও পড়ুন: পুলিশের বিজ্ঞাপনে রুদ্রনীলের ছবি! ‘বিরোধী হয়েও এমন কাণ্ড’, হতবাক অভিনেতা]

 

Advertisement
Next