একাধিক জায়গা থেকে গাঁজা কিনে সুশান্তের কাছে পৌঁছে দিতেন রিয়া! অভিযোগ এনসিবির

11:58 AM Jul 13, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিপাকে রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chakraborty)। প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন প্রেমিকার বিরুদ্ধে স্পেশ্যাল NDPS আদালতে পেশ করা হল চার্জশিট। অভিযোগ, বিভিন্ন জায়গা থেকে গাঁজা কিনতেন রিয়া। আর তা পৌঁছে দিতেন সুশান্তের কাছে।  রিয়া-সহ মোট ৩৫ জনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে বলে খবর।  

Advertisement

২০২০ সালের ১৪ জুন সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের পরে রীতিমতো আন্দোলিত হয় বলিউড। রিয়া-সহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করেছিল সুশান্তের পরিবার। পরে মাদক মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় রিয়াকে। প্রায় এক মাস বাইকুল্লা জেলে কাটিয়েছিলেন রিয়া। অনেকেই সুশান্তের মৃত্যুর জন্য তাঁকে দায়ী করেছিলেন। রিয়ার ভাই সৌভিককেও মাদক যোগের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। পরে জামিনে ছাড়া পান দু’জন। 

[আরও পড়ুন: শুটিং চলাকালীন শাহরুখের ‘ডাঙ্কি’র সেটে অশান্তি! ছবি থেকে সরে দাঁড়ালেন চিত্রগ্রাহক]

জামিন পাওয়ার কিছুদিন পর থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছিলেন রিয়া। আবার কাজ শুরু করার কথা ভাবছিলেন। শোনা গিয়েছিল, বাংলা ছবিতে অভিনয় করতে পারেন তিনি। কিন্তু তার আগেই নতুন এই চার্জশিটের খবর প্রকাশ্যে আসে। সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের খবর অনুযায়ী, ২০২০ সালে ভাই সৌভিক চক্রবর্তী, স্যামুয়েল মিরান্ডা, দীপেশ সাওয়ান্ত-সহ একাধিক ব্যক্তির গাঁজা নিতেন রিয়া। এর জন্য টাকাও দিতেন তিনি।  সেই গাঁজা রিয়া দিতেন প্রেমিক সুশান্ত সিং রাজপুতকে। 

Advertising
Advertising

উল্লেখ্য, এর আগে রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানেশিন্ডে দাবি করেছিলেন, রিয়ার কাছ থেকে কোনও মাদক উদ্ধার করতে পারেনি এনসিবি। কেবল মাত্র হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভিত্তিতেই মামলা সাজানো হয়েছিল। শোনা যায়, প্রমাণের অভাবেই রিয়ার জামিন মঞ্জুর করেছিল বম্বে হাই কোর্ট। কিন্তু নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো এবার বিশেষ NDPS আদালতে চার্জশিট পেশ করেছে। আর তাতেই ফের বিপাকে পড়তে পারেন সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন প্রেমিকা। এমনটাই মনে করছেন অনেকে। দোষ প্রমাণিত হলে রিয়ার ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে বলেই শোনা যাচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: ‘অশ্লীল ছেলে’, নেটফ্লিক্সের শোয়ে সঞ্চালক বেয়ার গ্রিলসকে দেদার চুমু! সমালোচিত রণবীর

Advertisement
Next