বাংলা নাটকে সাফল্যের নজির, ইউটিউবে ব্রাত্য বসুর ‘রুদ্ধসংগীত’দেখলেন লক্ষাধিক দর্শক

08:56 AM May 30, 2022 |
Advertisement

কুণাল ঘোষ: ব্রাত্যজনের ‘রুদ্ধসংগীত’ (Ruddhasangeet) দেখেছি তিনটি পর্যায়ে। এক, আত্মপ্রকাশের আগে অ্যাকাডেমির মঞ্চে গভীর রাতে স্টেজ রিহার্সাল। তখন ২০০৯ সাল। দুই, তার আটচল্লিশ ঘণ্টার মধ্যে আনুষ্ঠানিক প্রথম প্রদর্শন। তিন, এর প্রায় বারো বছর বাদে মাঝরাতে আপন মনে ইউটিউব ঘাঁটতে ঘাঁটতে খানিকটা অবাক হয়েই আবিষ্কার করলাম– আরেঃ, ডিজিটাল সংস্করণে সেই একই নাটক- ‘রুদ্ধসংগীত’, ব্রাত্যর অসাধারণ সৃষ্টি এবং দেবব্রত বিশ্বাসের ভূমিকায় অনবদ্য দেবশংকর হালদার (Debshankar Haldar)।

Advertisement

আর এখন, আরও অবাক করা খবর, এই নাটকের ইউটিউব সংস্করণের দর্শকসংখ্যা এক লক্ষ ছাড়াল। ‘রুদ্ধসংগীত’-এর এক অপরূপ বিশ্বায়ন, যা বাংলা নাটককে এগিয়ে দেবে, উৎসাহিত করবে। নাটক, একইভাবে মঞ্চস্থ, তবে দর্শকের বদলে প্রেক্ষাগৃহে পাঁচটি ক্যামেরা এবং অনলাইন সম্পাদনা। নাটক, রিয়েলিটি শো আর সিনেমার সময়োপযোগী মিশ্রণে ডিজিটাল যুগের নবজন্ম সংস্করণ। রবীন্দ্রসংগীতের স্বরলিপিবিতর্ক, জর্জ বিশ্বাসের কণ্ঠরোধের চেষ্টা থেকে শিল্প ও শিল্পের উপর কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বের নিয়ন্ত্রণ– গোটা নাটকটিই হুবহু নিজের চেহারায়।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: প্রবীণদের জন্য ‘বেলাশুরু’র স্পেশ্যাল স্ক্রিনিং, একসঙ্গে বসে ছবি দেখলেন শিবপ্রসাদও]

‘রুদ্ধসংগীত’ ডিজিটাল সংস্করণের দর্শক এক বছরেই এক লক্ষ ছাড়াল। স্বভাবতই খুশি ব্রাত্য বসু। রবিবার ব্রাত্য বললেন, “সরাসরি মঞ্চের যে প্রভাব ও উষ্ণতা, ইউটিউবে নিশ্চয়ই সেটি থাকে না। কিন্তু এই ফরম্যাট প্রচারে, প্রসারে, বিশ্বব্যাপী দর্শকের কাছে পৌঁছতে দারুণ কার্যকর হচ্ছে। তাছাড়া নাটক সংরক্ষণেও এটি একটি পদ্ধতি হয়ে যাচ্ছে। চালু নাটকে এসব করা যাবে না। তবে কোনও নাটকের প্রদর্শন শেষদিকে আসার সময় ডিজিটাল সংস্করণ করে রাখা যেতে পারে।” ব্রাত্যর অনুভূতি, “সেই সময় রুদ্ধসংগীত দারুণ সাড়া ফেলেছিল। কিন্তু এত বছর পরও দর্শকের সেই আবেগ অটুট, এটা দেখে আরও ভাল লাগছে।”

একটি বেসরকারি বাংলা চ্যানেল এই বাংলা নাটক ডিজিটালি রূপায়ণের কর্মসূচি নিয়েছিল। করোনার (Coronavirus) তাণ্ডবে সব যখন বন্ধ, তখন দর্শক নতুনত্বের স্বাদ পেয়েছিলেন এতে। ব্রাত্যর আট-দশটি নাটকের ডিজিটাল সংস্করণ হয়েছে। ব্রাত্যজন ছাড়াও অন্য গোষ্ঠীর নাটকও এসেছে ইউটিউবে।

কিন্তু ‘রুদ্ধসংগীত’ এক লাখ ‘ভিউ’ অতিক্রম করায় উচ্ছ্বসিত ব্রাত্য এতে আলাদা তৃপ্তি পাচ্ছেন। দমদম রবীন্দ্রভবনে এই বিশেষ রেকর্ডিংটি হয়েছিল। এক লাখের পাহাড়চুড়ো স্পর্শের আনন্দ সোশ্যাল মিডিয়াতেও ছড়িয়ে দিচ্ছে ব্রাত্যজন। ব্রাত্য বলেন, “এমনিতে নাটকের বাজার সীমিত, বৃত্ত খুব বড় নয়। তবে সমৃদ্ধ তো বটেই। এখন এই নতুন সময়োপযোগী ফরম্যাট আমাদের বৃত্তটা আরও বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই এ নিয়ে অনেকরকম ভাবনাচিন্তার অবকাশ আছে।”

দেবব্রত বিশ্বাসের জীবনকে কেন্দ্র করে গান আর রাজনীতির এক বিচিত্র সময়ের দলিল তৈরি করেছিলেন ব্রাত্য। সেই নাটকের সিনেমান্তর এখন দলিলটিকে নতুন সম্ভাবনার দরজায় পৌঁছে দিল। স্বয়ং ব্রাত্যর ফেসবুক পোস্ট– “রেকর্ড-রেকর্ড-রেকর্ড..!!! এই শতাব্দীতে বাংলা থিয়েটারের একটি অনবদ্য উপস্থাপনা। ইউটিউবে ব্রাত্য বসুর (ব্রাত্যজনের প্রথম) থিয়েটার ‘রুদ্ধসংগীত’-এর ১ লাখ ভিউয়ার। একজন স্রষ্টার থিয়েটার মাধ্যমের একসঙ্গে এত দর্শক কোনও বাংলা থিয়েটারে এই নতুন শতাব্দীতে হয়নি। সকল নাট্যমোদী দর্শককে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।’’

[আরও পড়ুন: ‘ভুল ভুলাইয়া ২’ ছবিতে বাংলা বলতে গিয়ে কীভাবে নাজেহাল হয়েছিলেন? জানালেন কার্তিক]

Advertisement
Next