Advertisement

কৃষকদের স্বস্তি, খারিফ শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের

12:12 PM Jun 10, 2021 |
Advertisement
Advertisement

স্টাফ রিপোর্টার, নয়াদিল্লি: নবান্নে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সঙ্গে কৃষক আন্দোলনের নেতা রাকেশ টিকায়েতের বৈঠকের দিনেই কৃষিতে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। বুধবার বেশ কিছু খরিফ শস্যের রিটার্ন ওভার কস্ট বাড়ানো হল ৫০ থেকে ৮৫ শতাংশ। 

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

গত বছরের ২৬ নভেম্বর থেকে দিল্লির রাজপথে আন্দোলন করছেন দেশের কৃষকরা। তাঁদের অন্যতম প্রধান দুই দাবি হল, কৃষি আইন প্রত্যাহার ও শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যকে আইনে পরিণত করা। এর মধ্যেই এদিন ন্যূনতম সহায়ক মূল্যে (এমএসপি) (MSP) ব্যাপক বৃদ্ধি হল। গম, জোয়ার, বাজরা, রাগি, মুগডাল, অড়হর ডাল-সহ বেশ কিছু খরিফ শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের বিক্রয়মূল্যে ব্যাপক রদবদল করা হল। শতাংশের বিচারে সবথেকে বেশি বৃদ্ধি হয়েছে বাজরার বিক্রয়মূল্য। গত বছর এই শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছিল কুইন্টাল প্রতি ২ হাজার ১৫০ টাকা। যা বেড়ে হল ২ হাজার ২৫০ টাকা। রিটার্ন ওভার কস্ট বৃদ্ধি হয়েছে ৮৫ শতাংশ। মটর ডালের ক্ষেত্রে তা ৬৫ শতাংশ। অড়হর ডাল ৬২ শতাংশ বৃদ্ধি হলেও গম, হাইব্রিড জোয়ার, রাগি, মুগ ডাল, তুলোর মতো শস্যের বৃদ্ধি হয়েছে ৫০ শতাংশ করে।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: রাজস্ব ঘাটতি অনুদান বাবদ ১৭ রাজ্যকে ৯ হাজার ৮৭১ কোটি টাকা কেন্দ্রের, তালিকায় বাংলাও]

এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর বলেন, “আমরা সংসদে দাঁড়িয়ে স্পষ্ট জানিয়েছি, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য যেমন চলছে তেমনই বজায় থাকবে। এমএসপি নিয়ে অনেকেই অনেক রকম ভ্রান্ত ধারণা তৈরি করতে চাইছে। আরও একবার জানিয়ে দিই, এমএসপি একটি ধারাবাহিক বিষয়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এর মান বৃদ্ধি পায়। এই নিয়ে দ্বিমতের কোনও জায়গা নেই।”

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশ ভোটের আগেই নির্বাচন কমিশনার পদে যোগী ‘ঘনিষ্ঠ’, তুঙ্গে বিতর্ক]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next