Advertisement

আরও চওড়া ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের থাবা, এবার দেড় বছরের শিশুর শরীরে মিলল ছত্রাকের খোঁজ

02:28 PM May 27, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার (Coronavirus) মাঝে নয়া ত্রাস ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। এই প্রথম শিশুর শরীরে মিলল এই ধরনের ছত্রাকের হদিশ। আক্রান্ত ওই শিশু রাজস্থানের বিকানেরের বাসিন্দা। এছাড়া গুজরাটের আহমেদাবাদে বছর পনেরোর এক কিশোরের শরীরেও মিলেছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস।

Advertisement

ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্যে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসকে মহামারী ঘোষণা করার নির্দেশ গিয়েছে কেন্দ্রের তরফে। রাজস্থান, তেলেঙ্গানা, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশের পথ ধরে বাংলাতেও এই রোগকে মহামারী ঘোষণা করা হয়েছে। যদিও কেন্দ্রের হিসেব অনুযায়ী এই মুহূর্তে বাংলায় ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সক্রিয় কোনও রোগী নেই। তাই বাংলাকে আলাদা করে এই রোগের বিরুদ্ধে কার্যকরী AMPHOTERICIN B’র ডোজও দেওয়া হচ্ছে না।

[আরও পড়ুন: মেহুল চোকসিকে ফেরত নিতে নারাজ অ্যান্টিগা, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ফেরানো হতে পারে ভারতে]

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা কৃষ্ণ ছত্রাক (Black Fungus) সবচেয়ে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে গুজরাটে। সেখানে এই ভাইরাসে আক্রান্ত ২ হাজার ৮৫৯ জন। দ্বিতীয় স্থানে মহারাষ্ট্র। সেখানে আক্রান্ত ২ হাজার ৭৭০ জন। অন্ধ্রপ্রদেশে ৭৬৮ জন এবং মধ্যপ্রদেশে ৭৫২ জন এই মারণ ছত্রাকের কবলে পড়ে চিকিৎসারত। কেন্দ্রের তরফে দাবি করা হয়েছে, যে রাজ্যে রোগীর সংখ্যা বেশি, সেই রাজ্যে বেশি করে ওষুধ সরবরাহ করা হচ্ছে। সেই যুক্তি অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ওষুধও সরবরাহ করা হয়েছে গুজরাটে। সেই রাজ্যে গিয়েছে ওষুধের ৭ হাজার ২১০টি ডোজ। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ৯৮০টি ডোজ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের ওষুধ AMPHOTERICIN B’র উৎপাদন বাড়ানো হচ্ছে। আগামী দিনে রাজ্যগুলি প্রয়োজন মতো ওষুধ পাবে।

[আরও পড়ুন: পাকিস্তান আক্রমণ করলে রাজ্য কি আলাদাভাবে অস্ত্র কিনত? টিকা নিয়ে কেন্দ্রকে খোঁচা কেজরির]

Advertisement
Next