Advertisement

‘বন্ধ হোক ভারত-পাক ম্যাচ’, কাশ্মীরে জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে দাবি বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রীর

10:18 AM Oct 19, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাতিল হোক বিশ্বকাপে আসন্ন ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ (India-Pakistan)। জম্মু-কাশ্মীরে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের হাতে ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের মৃত্যুর ঘটনায় সোমবার এমনই দাবি তুললেন বিহারের (Bihar) উপ-মুখ্যমন্ত্রী তারকিশোর প্রসাদ। তাঁর সঙ্গে সুর মেলালেন বিজেপি সাংসদ (BJP MP) তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংও।

Advertisement

ইতিমধ্যে ওমান এবং আরব আমিরশাহীতে শুরু হয়ে গিয়েছে টি-২০ বিশ্বকাপের আসর। চলছে কোয়ালিফাইয়িং রাউন্ড। অন্যদিকে, প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছে ক্রমতালিকায় উপরের দিকে থাকা দলগুলি। এরপরই শুরু হবে মূলপর্ব। আর প্রথম ম্যাচেই চির-প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের মুখোমুখি হবেন বিরাট কোহলিরা। এদিকে, জম্মু-কাশ্মীরে একের পর এক ভিনরাজ্যের শ্রমিক আক্রান্ত হচ্ছেন। রবিবারও বিহারের দুই শ্রমিককে গুলি করে খুন করেছে জঙ্গিরা। আর সেকারণেই ম্যাচ বয়কটের ডাক দিলেন বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: হিন্দু সংস্কৃতির অপমান! নেটিজেনদের রোষানলে জনপ্রিয় পোশাক প্রস্তুতকারক সংস্থা]

সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তারকিশোর প্রসাদ বলেছেন, “আমার মনে হয় আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বাতিল করা উচিত। তাহলে পাকিস্তানের কাছে এই বার্তাই যাবে, তারা যদি সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে, তাহলে ভারত কোনওকিছুতেই তাঁদের পাশে দাঁড়াবে না।” একই সুর শোনা গিয়েছে গিরিরাজ সিংয়ের গলাতেও। সাংবাদিকরা তাঁকে এই ম্যাচ প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করলে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সাফ জবাব, “আমার মনে দুই দেশের সম্পর্ক যেহেতু ভাল নয়, তাই এই ব্যাপারটি খুব ভাল নয়, অবিলম্বে ভেবে দেখা উচিত।”

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত জম্মু-কাশ্মীর (Jammu-Kashmir)। একদিকে পাক জঙ্গিদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর সংঘর্ষ চলছে। অন্যদিকে, একের পর এক ভিনরাজ্যের শ্রমিককে খুন করছে জঙ্গিরা। রবিবারও কুলগামে (Kulgam) বিহারের (Bihar) দুই শ্রমিককে খুন করে জঙ্গিরা। গুরুতর আহত হন আরও একজন। আর এই ঘটনায় পুরোপুরি দায় স্বীকার করে লস্কর-ই-তৈবার নয়া সংগঠন ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট জম্মু এবং কাশ্মীর বা ULF। সবমিলিয়ে, ১১ জন সাধারণ নাগরিক ও বেশ কয়েকজন সেনা জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন উপত্যকায়।

[আরও পড়ুন: যুদ্ধে অপরাজেয় হবে ভারত, নৌসেনার হাতে এল আরও একটি Poseidon-8I যুদ্ধবিমান]

Advertisement
Next