দেশবিরোধীদের রুখতে কমিটি, অভিন্ন দেওয়ানি বিধি! গুজরাটের ইস্তাহারে প্রতিশ্রুতির বন্যা বিজেপির

05:47 PM Nov 26, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শিয়রে আপ এবং কংগ্রেস। গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনে (Gujarat Assembly Election) তাই কোনওরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ বিজেপি (BJP)। দলের প্রচারে যেমন জাঁকজমক আর আড়ম্বরের কোনও কমতি ছিল না, ইস্তাহারেও তেমন প্রতিশ্রুতির কোনও ঘাটতি রইল না। ১ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতি, ৫ বছরে ২০ লক্ষ চাকরি, মেয়েদের বিনামুল্যে স্কুটি প্রদান, অভিন্ন দেওয়ানি বিধি, কী নেই সেই ইস্তেহারে?

Advertisement

শনিবার দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা (JP Nadda), মুখ্যমন্ত্রী ভুপেন্দ্র প্যাটেল (Bhpendra Patel) এবং গুজরাট বিজেপির রাজ্য সভাপতি সিআর পাতিলের উপস্থিতিতে গুজরাট নির্বাচনের জন্য ইস্তেহার প্রকাশ করেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের তরফে অবশ্য এটিকে ইস্তেহার বলা হচ্ছে না, বলা হচ্ছে ‘সংকল্প পত্র’। গুজরাটের ভোটারদের মন পেতে মোট ৪০টি আলাদা আলাদা ‘সংকল্পে’র কথা বলা হয়েছে ওই সংকল্প পত্রে। কী নেই সেই তালিকায়। গুজরাটকে ১ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতি হিসাবে তুলে ধরা, আয়ুষ্মান ভারত যোজনার আওতায় পরিবারপিছু বরাদ্দ বাড়িয়ে ৫ লক্ষ থেকে ১০ লক্ষ করা। সব মিলিয়ে ৫ বছরে ২০ লক্ষ চাকরি। আলাদা করে মহিলাদের জন্য ১ লক্ষ চাকরি। ৫ লক্ষ কোটির বিদেশি বিনিয়োগ। ২৫ হাজার কোটির সেচ প্রকল্প, গোশালার উন্নতির জন্য ৫ হাজার কোটি বরাদ্দ। রাজ্যের মহিলা ছাত্রীদের ইলেক্ট্রিক স্কুটি দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে গেরুয়া শিবির-সহ প্রতিশ্রুতির বন্যা।

[আরও পড়ুন: ২৬/১১ মুম্বই হামলার ১৪ বছর, ফের পাকিস্তানকে তোপ দেগে বিস্ফোরক মোদি]

এ তো গেল আর্থিক দিক। সুকৌশলে ইস্তাহারের মধ্যেও ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে জাতীয়তাবাদ এবং হিন্দুত্বের বীজ। বিজেপি বলছে, ক্ষমতায় এলেই রাজ্যে কার্যকর করা হবে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি (Uniform Civil Code)। সেজন্য আলাদা করে গড়া হবে কমিটি। শুধু তাই নয়, রাজ্যে ভারত বিরোধী শক্তিকে দমন করার জন্য আলাদা বিভেদ দমন কমিটিও গড়া হবে। যাদের কাজ হবে দেশবিরোধীদের চিহ্নিত করে তাদের শাস্তি দেওয়া।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ভোট মিটতেই ফের জেলে রাম রহিম, নির্বাচনী রাজনীতির সঙ্গে ‘যোগ’ নিয়ে সরব বিরোধীরা]

প্রশ্ন হচ্ছে, রাজ্যে টানা আড়াই দশক ক্ষমতায় থাকার পরও আলাদা করে এত ভুরি ভুরি প্রতিশ্রুতি কেন দিতে হচ্ছে বিজেপিকে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) নিজেই বিরোধীদের পাইয়ে দেওয়ার রাজনীতি নিয়ে কথা শোনান, অথচ তাঁর দলই স্কুটি, থেকে শুরু করে বিনামুল্যে চিকিৎসা সবই পাইয়ে দেওয়ার কথা বলছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, শুরুর দিকে গুজরাট জয়ের ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত ছিল বিজেপি। কিন্তু ভোটের দিন যত এগিয়ে আসছে, বিজেপির আত্মবিশ্বাস ততই ফিকে হচ্ছে। ইস্তাহারে প্রতিশ্রুতির বন্যা বিজেপির সেই ভীতিরই বহিঃপ্রকাশ।

Advertisement
Next