Advertisement

উত্তরপ্রদেশে বিজেপির মুখ যোগীই, কোভিড ব্যর্থতা ঢাকতে আসরে মোদি ঘনিষ্ঠ প্রাক্তন আমলা!

08:04 PM Jun 04, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তাঁর বিরুদ্ধে ভূরি ভূরি অভিযোগ। করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থতা, নারী নিরাপত্তা নিয়ে ক্ষোভ।দলের অন্দরে হাজার অসন্তোষ। সদ্য পঞ্চায়েত নির্বাচনে হার। এতকিছু সত্ত্বেও আগামী বছর উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের (Uttar Pradesh Assembly Elections) আগে ক্ষমতা ধরে রাখতে যোগী আদিত্যনাথের উপরই বাজি ধরছে বিজেপি। এমনটাই খবর গেরুয়া শিবির সূত্রে। তবে, করোনা পরিস্থিতিতে যোগীর ভাবমূর্তিতে যে আঘাত লেগেছে তা মেরামত করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘনিষ্ঠ প্রাক্তন এক আমলাকে উত্তরপ্রদেশে পাঠাতে পারে বিজেপি (BJP)।

Advertisement

করোনা মোকাবিলা নিয়ে গত কয়েকমাসে বিরোধীদের প্রশ্নবাণে বিদ্ধ যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। কখনও উত্তরপ্রদেশের গঙ্গায় মৃতদেহ ভাসতে দেখা যাচ্ছে, আবার কখনও দেখা যাচ্ছে গঙ্গার ধারে মৃতদেহের সার। হাসপাতালে অক্সিজেনের সংকট। চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীর অভাব। সব মিলিয়ে বিগত কয়েক মাস নিদারুণ সংকটের মধ্যে কেটেছে উত্তরপ্রদেশবাসীর। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে যোগী আদিত্যনাথের প্রশাসনিক দক্ষতা নিয়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে গেরুয়া শিবিরের দিল্লির নেতাদের। এমনকী আরএসএসের (RSS) তরফেও যোগীর কাজের খোঁজ খবর নেওয়া হয়। দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেন শীর্ষ নেতারা। এমনও জল্পনা চলতে থাকে, কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রের রোষে পড়তে পারেন যোগী। তবে, সেসব জল্পনা উড়িয়ে যোগীর উপরই ভরসা রাখতে চলেছে গেরুয়া শিবির। তিনি যে শুধু মুখ্যমন্ত্রী থাকছেন তাই নয়, আগামী বছর বিধানসভা ভোটেও তাঁর নেতৃত্বেই লড়বে বিজেপি। যোগীর স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, তৃণমূল স্তরে কাজ করার অভিজ্ঞতা এ যাত্রায় বাঁচিয়ে দিল তাঁকে।

[আরও পড়ুন: জামিন পেয়েই প্রধানমন্ত্রীকে খুনের হুমকি একাধিক মামলায় জড়িত আসামির! গ্রেপ্তার করল দিল্লি পুলিশ]

মোট কথা উত্তরপ্রদেশ দখলের ক্ষেত্রে এখনও যোগীর বিকল্প কোনও মুখ খুঁজে পায়নি গেরুয়া শিবির। তবে, কোভিড মোকাবিলায় ব্যর্থতা সামাল দিতে প্রশাসনিক এবং দলের সাংগঠনিক স্তরে কিছু রদবদল হতে পারে। বিজেপি সূত্রের খবর, খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ঘনিষ্ঠ আমলা এ কে শর্মাকে রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োগ করা হতে পারে। শুধু তাই নয়, দল এবং প্রশাসনের মধ্যে যাতে আরও ভাল সমন্বয় সাধনের নিয়মিত বৈঠক করারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। 

Advertisement
Next