ফের বিপাকে চিদম্বরমপুত্র কার্তি, আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগে নয়া মামলা দায়ের করল CBI

11:10 AM May 17, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নতুন করে বিপাকে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের (P Chidambaram) পুত্র কার্তি। তাঁর বিরুদ্ধে নতুন করে আরও কয়েকটি মামলা দায়ের করল সিবিআই (CBI)। আর তার জেরে মঙ্গলবার সকাল থেকে দেশের নানা প্রান্তের চিদম্বরমের বাসভবন এবং কার্যালয়ে চলছে সিবিআই তল্লাশি। দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই ও তামিলনাড়ুতে চিদম্বরমের বাড়ি ও কার্যালয়ে শুরু হয়েছে জোরদার তল্লাশি। বেআইনি আর্থিক লেনদেনের সঙ্গে জড়িত কার্তি, এই মর্মে নতুন মামলা দায়েরের পরই তদন্তে নেমে সক্রিয়তা দেখিয়েছেন সিবিআই কর্তারা। তবে কার্তি চিদম্বরমের হদিশ দিতে পারেননি বাড়ির কেউই, এমনই খবর সিবিআই সূত্রে।

Advertisement

সিবিআই সূত্রে খবর, দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই এবং তামিলনাড়ুর শিবগঙ্গায় অন্তত সাতটি জায়গায় তল্লাশি চলছে সকাল থেকে। এই সবক’টি জায়গাতেই হয় প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর বাসভবন নয়তো কার্যালয়। কার্তির (Karti Chidamabram) বিরুদ্ধে অভিযোগ একটি, দু’টি নয়। বাবা কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন বিদেশি অর্থের বিনিময়ে INX মিডিয়ার অনুমোদন পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগে গোড়ায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। অভিযোগ, ৩০৫ কোটি টাকা ওই বিদেশি সংস্থার কাছ থেকে হাতিয়েছিলেন কার্তি।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: সবুজ সাথীর সৌজন্যে দেশের সেরা বাংলা, ৭৯% পরিবারই সাইকেলের মালিক]

২০১৭ সালে তাঁর বিরুদ্ধে সিবিআই আর্থিক তছরূপের মামলা দায়ের করে। পাশাপাশি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটও (ED) অর্থ নয়ছয়ের মামলায় তদন্তে নামে। ২০১৮ সালে কার্তিকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই। তবে পরে জামিনে মুক্তি পান তিনি। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার সাঁড়াশি চাপে ছিলেনই চিদম্বরমপুত্র। এবার তাতে যোগ হল আরও একটি মামলা, যার অভিযোগ অত্যন্ত গুরুতর। 

[আরও পড়ুন: ‘মমতাই এখনও বিরোধী মুখ, কংগ্রেস নয়’, ‘জাগো বাংলা’য় রাহুল গান্ধীর বক্তব্যের পালটা তৃণমূলের]

সিবিআই সূত্রে খবর, কার্তি ভিসা পাইয়ে দেওয়ার জন্য় ঘুষ নিয়েছিলেন। ২৫০ জন চিনা নাগরিককে ৫০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে ভিসা পেতে সাহায্য করেছিলেন চিদম্বরমপুত্র। আর এই মামলায় বেশ চাপে পড়তে পারেন কার্তি, ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের। যদিও বিরোধী রাজনৈতিক নেতৃত্বের দাবি, সিবিআইয়ের এই পদক্ষেপ নিতান্তই রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক।

Advertisement
Next