ন্যাশনাল হেরাল্ড: ইডি দপ্তরে হাজিরা সোনিয়ার, সংসদে প্রতিবাদ বিরোধীদের, রাজপথে বিক্ষোভে কংগ্রেস

12:47 PM Jul 21, 2022 |
Advertisement

সোমনাথ রায়, নয়াদিল্লি: তিনবার তলবের পর ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় ইডি দপ্তরে হাজিরা দিলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী (Sonia Gandhi)। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা নাগাদ দিল্লিতে ইডি দপ্তরে হাজিরা দেন সোনিয়া। সঙ্গে ছিলেন তাঁর মেয়ে তথা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (Priyanka Gandhi)। সোনিয়া ইডি দপ্তরে যাওয়ার বেশ কিছুক্ষণ আগেই তাঁর বাড়ি পৌঁছে যান প্রিয়াঙ্কা। হাজিরার আগে মায়ের সঙ্গে দেখা করে এসেছেন রাহুল গান্ধীও।

Advertisement

ইডি সূত্রের খবর, রাহুলের মতোই সোনিয়াকেও দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হতে পারে। কংগ্রেস সভানেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ মহিলা আধিকারিকের একটি দল গঠন করেছে ইডি (ED)। শোনা যাচ্ছে, শেষ মুহূর্তে সোনিয়ার সঙ্গে আইনজীবী এবং একজন চিকিৎসককে ইডি দপ্তরে পাঠানোর দাবি জানিয়েছিল কংগ্রেস (Congress)। যদিও ইডি দপ্তরে যাওয়ার সময় সোনিয়ার সঙ্গে কোনও চিকিৎসক ছিলেন না।

[আরও পড়ুন: মধ্যপ্রদেশের পুরভোটে বিরাট ধাক্কা বিজেপির, গড় হারালেন সিন্ধিয়া, নরেন্দ্র সিং তোমররা]

গত মাসে ন’দিনের ব্যবধানে পাঁচবার প্রায় ৫৩ ঘণ্টা ইডি আধিকারিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। সেই সময় দলের নেতার সমর্থনে পথে নেমেছিলেন হাজার হাজার কংগ্রেস নেতা, কর্মী, সমর্থক। দিল্লির একটি বড় এলাকাজুড়ে জারি ছিল ১৪৪ ধারা। ঠিক একইভাবে সোনিয়ার হাজিরার দিনও পথে নেমেছে কংগ্রেস। এবারে প্রতিবাদ কর্মসূচি আরও বৃহৎ। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কংগ্রেস নেতাকর্মীরা ইডি দপ্তর ঘেরাও অভিযানে নেমে পড়েছেন। অনেক রাজ্যেই পুলিশের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ছেন কংগ্রেস নেতাকর্মীরা।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের গণনা: দ্রৌপদীর গ্রামের বাড়িতে উৎসবের আমেজ, দেখা করতে পারেন মোদিও]

তবে কেন্দ্রীয় স্তরে প্রতিবাদ কর্মসূচি এদিন নেওয়া হয়েছিল সংসদে। এদিন সংসদ অধিবেশনের আগেই রাজ্যসভার দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গের ঘরে বিরোধী দলগুলির একটি বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে ১৩টি বিরোধী দল সম্মিলিতভাবে কেন্দ্রীয় এজেন্সির অপব্যবহার নিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছে। সংসদের অধিবেশন শুরুর পরই ইডি দিয়ে সোনিয়াকে হেনস্তার অভিযোগে স্লোগান দিতে থাকেন বিরোধী সাংসদরা। যার জেরে সংসদের দুই কক্ষেই অধিবেশন মূলতুবি হয়ে যায়। এরপরই ‘বিরোধী নেতাদের উপর কেন্দ্রীয় সংস্থার অপব্যবহারে’র প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেস সাংসদরা।

Advertisement
Next