Coronavirus: উৎসবের মরশুমে দেশে লাগাতার ঊর্ধ্বমুখী করোনার অ্যাকটিভ কেস, চিন্তা পজিটিভিটি রেটেও

09:44 AM Sep 18, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উৎসবের মরশুমে ফের চিন্তা বাড়ানো শুরু করেছে করোনা। নতুন করে এই মারণ ভাইরাস যেন জাল বিছানো শুরু করে দিয়েছে। গত কয়েকদিন টানা বেড়ে চলেছে সক্রিয় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা। সেই সঙ্গে উদ্বেগজনক পজিটিভিটি রেটও। এখনও দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যাটা পাঁচ হাজারের উপরেই থাকছে। সেটাও ভাবাচ্ছে স্বাস্থ্যমন্ত্রককে।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৬৬৪ জন। গতকালও সংখ্যাটা ছিল ৫ হাজারের বেশি। সংক্রমণ বাড়ার পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে অ্যাকটিভ কেসও। দেশের সক্রিয় রোগী বর্তমানে ৪৭ হাজার ৯২২ জন। আগের দিনের থেকে প্রায় হাজার খানেক বেড়েছে এই অ্যাকটিভ কেস। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, ভারতে একদিনে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৩৫ জন। যা আগের দিনের প্রায় সমানই। দেশে এখনও পর্যন্ত কোভিডে মোট মৃতের সংখ্যা ৫ লক্ষ ২৮ হাজার ৩৩৭।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: মোদির জন্মদিনে গোটা গুজরাটে সরকারি কর্মীদের বিক্ষোভ, গণছুটিতে স্তব্ধ রাজ্য]

মারণ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে বাড়ছে সুস্থতার হারও। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে ৪ কোটি ৩৯ লক্ষ ৫৭ হাজার ৯২৯ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন। বর্তমানে সুস্থতার হার ৯৮.৭১ শতাংশ। সার্বিকভাবে দেশের পরিসংখ্যানে স্বস্তি মিললেও এখনও চিন্তা থাকছে পজিটিভটি রেট নিয়ে। বর্তমানে দেশের দৈনিক পজিটিভিটি রেট ১.৯৬ শতাংশের কাছাকাছি। একাধিক রাজ্যে এই সংক্রমণের হার ৩ শতাংশেরও বেশি।

[আরও পড়ুন: লেন্সের কভার না সরিয়েই ছবি তুলছেন প্রধানমন্ত্রী! ব্যাপারটা কী?]

সংক্রমণের গতি কমলেও টিকাকরণের গতির সঙ্গে আপস করতে চাইছে না সরকার। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য জানাচ্ছে, দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে ২১৬ কোটি ৫৬ লক্ষের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টাতেই টিকা পেয়েছেন প্রায় ১৫ লক্ষ মানুষ। টিকাকরণের পাশাপাশি করোনা রোগী চিহ্নিত করতে জোর দেওয়া হচ্ছে টেস্টিংয়েও। গতকাল দেশে ২ লক্ষ ৮৯ হাজার ২২৮ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

Advertisement
Next