গেহলট নন, গান্ধীদের সমর্থনে কংগ্রেস সভাপতি হওয়ার দৌড়ে দিগ্বিজয় সিং!

10:09 AM Sep 29, 2022 |
Advertisement

স্টাফ রিপোর্টার, নয়াদিল্লি: শুক্রবারই কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন। তবে এখনও পর্যন্ত দলের সর্বোচ্চ নেতা কে হতে পারেন, তা নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারল না হাইকমান্ড। রাজস্থানে গেহলটপন্থীদের (Ashok Gehlot) বিক্ষোভের পর থেকেই সংকটে পড়ে গিয়েছে কংগ্রেসের ভবিষ্যৎ। যা এদিন আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন গেহলট ক্যাম্পের প্রথম সারির নেতা প্রতাপ সিং কাচারিয়াস। তিনি জয়পুরে বলেন, “অশোকজিই আমাদের নেতা। উনি কিছুতেই ইস্তফা দেবেন না।” এরপরই আবার বিদায়ী অন্তর্বর্তীকালীন দলনেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করতে দিল্লি আসেন গেহলট। যদিও মরুরাজ্য থেকে পরপর গেহলট ঘনিষ্ঠদের বক্তব্যে স্পষ্ট হয়ে যায়, মুখ্যমন্ত্রীত্বকেই বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন তিনি। একই সঙ্গে স্পষ্ট দেওয়াল লিখন তৈরি হয়ে যায় যে, কংগ্রেস (Congress) সর্বাধিনায়কের আসনে বসা হচ্ছে না তাঁর।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

কারণ, গেহলটেরই রাজ্যে চার মাস আগে দল সিদ্ধান্ত নিয়েছে এক ব্যাক্তি থাকতে পারবেন শুধু মাত্র একটি পদেই। এই সমীকরণেই শেষ মুহূর্তে পালে হাওয়া লাগতে শুরু করেছে মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিংয়ের (Digvijay Singh)। এমনিতেই দীর্ঘদিন ধরে তাঁর গায়ে আছে গান্ধী ঘনিষ্ঠ জার্সি। তাই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বর্তমান সময়ে কোনও ঝুঁকি না নিয়ে দিগ্বিজয়কেই সভাপতি পদে নিজেদের মুখ করতে পারে শীর্ষনেতৃত্ব, এমনটাই শোনা যাচ্ছে। শুরু থেকেই অত্যন্ত বিনয়ের সঙ্গে ‘ম্যাডামে’র কাছে তাঁর নাম বিবেচনা না করার অনুরোধ করেছেন মল্লিকার্জুন খাড়গে (Mallikarjun Kharge)।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: দেড়বছর হাত গুটিয়ে বসে থেকে সংগঠন দুর্বল হয়েছে, বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে রিপোর্ট বনসলের]

রবিবার রাজস্থানের নাটকের পর আরেক বিশ্বস্ত সৈনিক কমলনাথকে (Kamal Nath) সোনিয়া ডেকে পাঠালেও তিনিও সভাপতি হতে রাজি হননি। পবন বনসল মনোনয়ন পেশের ফর্ম তুললেও তাঁকে যোগ্য বলে মনে করছেন না অনেকেই। আবার শশী থারুরকে (Shashi Tharoor) ভরসা করে জিতিয়ে আনার সাহসও দেখানো যাচ্ছে না। প্রথমত, তাঁর উপর চোখ বন্ধ করে ভরসা করতে পারবেন না গান্ধীরা। তাছাড়া এখনও পর্যন্ত জাতীয় রাজনীতিতে শশীর সেই ইমেজ তৈরি হয়নি, যে তাঁকে কংগ্রেস সভাপতি করা যায়। এই পরিস্থিতিতে এদিন এ কে অ্যান্টনিকে (AK Antony) ডেকে পাঠান সোনিয়া।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

[আরও পড়ুন: ৯ মাসের অপেক্ষার অবসান, বিপিন রাওয়াতের জায়গায় নতুন সেনা সর্বাধিনায়কের নাম ঘোষণা কেন্দ্রের]

গল্পের এখানেই শেষ নয়। সভাপতি নাটকে শেষ অঙ্কের কাছাকাছি এসে এল এক নতুন মোড়ও। প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে (Priyanka Gandhi) সভাপতি করার দাবি তুলে বসলেন অসমের কংগ্রেস সাংসদ আবদুল খালেক। তাঁর দাবি, যেহেতু রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) সভাপতি হতে চাইছেন না, তাই প্রিয়াঙ্কাই যোগ্যতম। তিনি বঢরা পরিবারের সদস্য। গান্ধীও নন।

Advertisement
Next