Abhishek Banerjee: সুপ্রিম কোর্টে মুখ পুড়ল ইডির, দিল্লি নয়, অভিষেক-রুজিরাকে কলকাতায় জেরার নির্দেশ

12:52 PM May 17, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টে মুখ পুড়ল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (Enforcement Directorate)। দিল্লিতে নয়, চাইলে কয়লা পাচার মামলায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) এবং তাঁর স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কলকাতায় এসে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবেন ইডির আধিকারিকরা। মঙ্গলবার এমনই অন্তর্বর্তী নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। এদিন শীর্ষ আদালত দিল্লি হাই কোর্টের রায়ের উপর স্থগিতাদেশ জারি করে। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ১৯ জুলাই।

Advertisement

কয়লা পাচার মামলায় তৃণমূল সাংসদ (TMC MP) এবং তাঁর স্ত্রীকে দিল্লিতে ডাকা হয় জেরা করার জন্য। এর বিরুদ্ধে দিল্লি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল এই দম্পতি। কিন্তু তাঁদের আরজি খারিজ করে দেয় দিল্লি আদালত। পালটা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন অভিষেক এবং রুজিরা। সেই মামলায় এদিন স্বস্তি পেলেন তাঁরা। উল্লেখ্য, ইডি বারবার সমন পাঠালেও হাজিরা দেননি রুজিরা। জানিয়েছিলেন, দুই সন্তানকে কলকাতায় রেখে তাঁর পক্ষে দিল্লি আসা সম্ভব নয়। বারবার হাজিরা এড়ানোয় রুজিরার বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। কিন্তু এই মামলাতে আপাতত রুজিরাকে গ্রেপ্তার করা যাবে না বলেও নির্দেশ দিল সুুপ্রিম কোর্ট।

[আরও পড়ুন: ‘ডোনেট মি এ গার্লফ্রেন্ড’, প্ল্যাকার্ড হাতে রাস্তায় ঘুরছেন যুবক! ব্যাপারটা কী?]

এদিন সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, কয়লা পাচার মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিষেক-রুজিরাকে আপাতত দিল্লিতে ডাকা যাবে না। তবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা চাইলে কলকাতায় গিয়ে অভিষেক এবং রুজিরাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই পারে। তবে সেক্ষেত্রে ওই দম্পতিকে ২৪ ঘণ্টা আগে নোটিস পাঠাতে হবে। নোটিসের কপি পাঠাতে হবে কলকাতার পুলিশ কমিশনারকেও।

Advertising
Advertising

এদিন রাজ্য সরকারের তরফে শীর্ষ আদালতে জানানো হয়, কয়লা পাচার মামলায় (Coal Scam) জেরার ক্ষেত্রে ইডি আধিকারিকদের প্রয়োজনীয় সমস্ত সাহায্য করা হবে। তাই জেরা চলাকালীন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কলকাতা পুলিশকেই তদন্তকারী আধিকারিকদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে বলেও নির্দেশ দিল শীর্ষ আদালত। এদিন সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, তদন্তকারী ইডি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে কোনও মামলা করতে পারবে না রাজ্য। যদিও এমন কোনও পদক্ষেপ করা হয় সেক্ষেত্রে ইডি চাইলে সুপ্রিম কোর্টের অবসরকালীন বেঞ্চের দ্বারস্থ হতে পারবে। 

[আরও পড়ুন: ‘নিখোঁজ’ নুসরত জাহান! বসিরহাটে তারকা সাংসদের পোস্টার ঘিরে শোরগোল]

গত বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টের ভর্ৎসনার মুখে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (Enforcement Directorate)। ইডিকে আদালতের প্রশ্ন, “অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী রুজিরাকে কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে সমস্যা কোথায়? কেন বারবার দিল্লিতে ডাকা হচ্ছে তাঁদের?” আদালতের প্রশ্নের উত্তর দিতে সময় চায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

Advertisement
Next