জল্পেশের পথে দুর্ঘটনায় মৃত্যু ১০ পূণ্যার্থীর, নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য রাজ্য ও কেন্দ্রের

09:23 PM Aug 02, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জল্পেশ মন্দিরে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ১০ পূণ্যার্থীর। রাজ্যের তরফে নিহতদের পরিবারের হাতে আর্থিক সাহায্যের চেক তুলে দেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। মৃতদের পরিবারের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে মঙ্গলবার আর্থিক সাহায্য ঘোষণা করল কেন্দ্রও।

Advertisement

এদিন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের (PMO) তরফে টুইট করে জানানো হয়, জল্পেশ মন্দির যাওয়ার সময় দুর্ঘটনায় যাঁদের মৃত্যু হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ তহবিল থেকে তাঁদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে। পাশাপাশি আহতদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে ৫০ হাজার টাকা করে। স্বজনহারাদের প্রতি সহানুভূতিও জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)। সেই সঙ্গে আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন তিনি।

মৃতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের আশ্বাস আগেই দিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার শীতলখুচি ব্লকের কমিউনিটি হলে মৃতদের পরিবারের হাতে ২ লক্ষ টাকা করে চেক তুলে দেন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘রাগ ছিল, জুতো মেরে শান্তি পেয়েছি’, ESI হাসপাতালে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের উপর হামলা মহিলার]

গত রবিবার কোচবিহারের (Cooch Behar) শীতলকুচি থেকে প্রায় ১৮ জন পুণ্যার্থী একটি পিকআপ ভ্যানে করে জল্পেশের দিকে যাচ্ছিলেন। চ্যাংরাবান্ধার ধরলা সেতুর কাছে জেনারেটর থেকে সেই গাড়িতে শর্ট সার্কিট হয় বলে কয়েকজন পুণ্যার্থী দাবি করেন। বিষয়টি বুঝতে পেরে চালক অসুস্থদের চ্যাংরাবান্ধা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে ১০ জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসক। মৃতদের বাড়ি শীতলকুচিতে। ৬ জনকে গুরুতর অবস্থায় জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে রেফার করা হয়। 

এরপরই জল্পেশ (Jalpesh Temple) যাওয়ার পথে ডিজে ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে জলপাইগুড়ি জেলা প্রশাসন। পাশাপাশি ওভারলোডিং রুখতে কড়া নজরদারিও চালাচ্ছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই জেলাপ্রশাসনের তরফে নিহতদের পরিবার এবং আহতদের সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘আমি কি পার্থ চ্যাটার্জি?’, প্রীতি ম্যাচে কর্মীরা মোটা অঙ্কের অনুদান চাওয়ায় বেফাঁস তৃণমূল বিধায়ক]

Advertisement
Next