Advertisement

হিন্দু সংস্কৃতির অবমাননার অভিযোগ! চাপে পড়ে বিজ্ঞাপন সরাল পোশাক নির্মাতা সংস্থা

06:44 PM Oct 19, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্কের জের। হিন্দু সংস্কৃতিকে অপমানের অভিযোগ ওঠায় তাদের একটি বিজ্ঞাপন মুছে দিল পোশাক প্রস্তুতকারক সংস্থা ফ্যাবইন্ডিয়া (Fabindia)। বিতর্ক এতটাই গড়িয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় যে সংস্থার তৈরি করা পোশাক বয়কটের ডাকও দেওয়া হয়। অবশেষে বিতর্কিত বিজ্ঞাপনটি মুছে দিল সংস্থা।

Advertisement

কিন্তু কেন বিতর্ক তৈরি হল? ঘটনার সূত্রপাত হয় ফ্যাব ইন্ডিয়ার দিওয়ালি ক্যাম্পেনকে (Diwali Campaign) কেন্দ্র করে। যার নাম দেওয়া হয় ‘জশন-এ-রিওয়াজ’ (Jashn-e-Riwaaz)। সংস্থার পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু মডেলের ছবি পোস্ট করে ক্যাম্পেনের ঘোষণা করা হয়।

[আরও পড়ুন: মোদির সঙ্গে জেমস বন্ডের তুলনা করল তৃণমূল, কেন জানেন?]

ফ্যাবইন্ডিয়ার এই ক্যাম্পেন নিয়েই আপত্তি তোলেন নেটিজেনদের একাংশ। “কোনও বিন্দি নেই, এই ধরনের পোশাক হিন্দুদের নয়, এটি মুঘল স্টাইলের ফ্যাশন”, এমন দাবি করা হয়। ক্যাম্পেনের ‘জশন-এ-রিওয়াজ’ নাম নিয়েও আপত্তি তোলা হয়। এটি হিন্দু সংস্কৃতির বিরোধী বলেও অভিযোগ করা হয়। ‘শেম অন ফ্যাবইন্ডিয়া’ কথাটিও লেখা হয় টুইটারে। সংস্থার পোশাক বয়কট করার ডাক দেওয়া হয়।

পরে বিজেপি নেতা তেজস্বী সূর্যও টুইট করে ক্ষোভ উগরে দেন। তিনি লেখেন, “দীপাবলি জশন-এ-রিওয়াজ নয়। এর মাধ্যমে হিন্দু উৎসবের অপমান করা হচ্ছে। মডেলদের পরনে হিন্দু পোশাক পর্যন্ত নেই। এটি অবিলম্বে বন্ধ হওয়া দরকার।” বিতর্ক শুরু হওয়ার পরে বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নেয় ফ্যাবইন্ডিয়া। পরে সংস্থার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, ‘জশন-এ-রিওয়াজ’ দিওয়ালির পোশাক কালেকশন নয়। দিওয়ালিতে তারা যে কালেকশন নিয়ে আসছে তার নাম ‘ঝিলমিল সে দিওয়ালি’।

[আরও পড়ুন: মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালিয়ে হাজতে ভাইপো, থানায় গিয়ে ধরনা বিধায়ক পিসির]

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ফ্যাবইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের সংস্থা প্রতি মাসে এমনকী ১৫ দিন অন্তর নতুন নতুন কালেকশন নিয়ে আসে ভারতীয় উৎসবগুলির কথা মাথায় রেখে। এর মধ্যে দিওয়ালির মতোই রয়েছে দুর্গাপুজো থেকে ওনামের মতো উৎসবও। ‘জশন-এ-রিওয়াজ’ বলতে বোঝানো হয় ‘উৎসব উদযাপন’। এর সঙ্গে দিওয়ালির কোনও সম্পর্ক নেই।

Advertisement
Next