Advertisement

‘পুলিশ ওকে গুলি করে মারলেও আক্ষেপ নেই’, বলছেন মুম্বইয়ের ধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্তের বাবা

04:46 PM Sep 15, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাণিজ্যনগরীর সাকিনাকায় ধর্ষণ (Sakinaka rape) ও নৃশংস নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যু হয়েছে এক মহিলার। মুম্বইয়ের (Mumbai) ‘নির্ভয়া’র করুণ পরিণতিতে গর্জে উঠেছে দেশ। এবার ক্ষোভে ফেটে পড়লেন অভিযুক্তের বাবা। জানালেন, পুলিশ যদি তাঁর ছেলেকে গুলি করেও মারে, তাঁর কোনও আফশোস হবে না।

Advertisement

অভিযুক্ত মোহিতের বাবা কাটওয়ারু চৌহান প্রথমে বিশ্বাস করেননি তাঁর ছেলে এমন কোনও নারকীয় কাণ্ড ঘটাতে পারে। কিন্তু সিসিটিভি দেখে ভুল ভেঙেছে তাঁর। আত্মজের এই চেহারা দেখে স্তম্ভিত হতভাগ্য বাবা। স্ত্রী মারা যাওয়ার পরে তিনি একাই থাকেন। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় নিজের ছেলের উপরেই ক্ষোভ উগরে দিয়ে তিনি বলেছেন, যদি পুলিশ ওকে গুলি করেও মারে তাঁর কোনও আক্ষেপ হবে না।

[আরও পড়ুন: পেট্রল কেনার টাকা নেই! মোষের পিঠে চেপেই মনোনয়ন জমা দিলেন বিহারের পঞ্চায়েত ভোটের প্রার্থী]

ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪৫ বছরের মোহন চৌহানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ মনে করছে, এই ঘটনায় আরও একাধিক দুষ্কৃতী জড়িত থাকতে পারে। ইতিমধ্যেই ধৃতকে একপ্রস্থ জেরা করা হয়েছে। ধৃতের কাছ থেকে আরও তথ্য পাওয়ার চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, ঘটনার পরের দিন ভোরে মুম্বই পুলিশের কাছে একটি ফোন আসে। জানানো হয়, সাকিনাকার খ্যায়রানি এলাকায় রক্তাক্ত অবস্থায় এক মহিলা পড়ে রয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে কাছাকাছি টহলরত পুলিশের একটি দলকে সেখানে পাঠানো হয়। দেখা যায়, টেম্পোর ভিতরে মহিলার রক্তাক্ত দেহ পড়ে রয়েছে। তাঁকে উদ্ধার করে পাঠানো হয় রাজাওয়াড়ি হাসপাতালে। জানা যায়, ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৩৪ বছরের মহিলা। তাঁর যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রায় ৩৩ ঘণ্টা ধরে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়েছিলেন নির্যাতিতা। পরে হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

[আরও পড়ুন: ‘ষাঁড়, মোষ এবং মহিলা, উত্তরপ্রদেশে সবাই সুরক্ষিত’, মন্তব্য যোগী আদিত্যনাথের]

Advertisement
Next