বালিশের সঙ্গে সঙ্গম, সহপাঠীদের নিয়ে যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য! ভয়ংকর র‌্যাগিংয়ের শিকার ডাক্তারি ছাত্রী

06:26 PM Jul 30, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কখনও বালিশের সঙ্গে সঙ্গম করতে বাধ্য হয়েছেন, তো কখনও বান্ধবীদের নিয়ে অশালীন যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করতে হয়েছে। চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) মেডিক্যাল কলেজে ভরতি হওয়া প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী এমনই র‌্যাগিংয়ের (Ragging) শিকার। এনিয়ে অবশ্য ইউনিভার্সিটি গ্রান্ট কমিশনের র‌্যাগিং বিরোধী কমিটির দ্বারস্থ হন ওই ছাত্রী। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে ৮-১০ জন ডাক্তারি পড়ুয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

Advertisement

ইন্দোরের (Indore) মহাত্মা গান্ধী মেমোরিয়াল মেডিক্যাল কলেজের (MGM College) প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছেন। তাঁর অভিযোগ, তৃতীয় বর্ষের কয়েকজন পড়ুয়া উত্যক্ত করত। র‌্যাগিংয়ের নামে ‘অস্বাভাবিক’ যৌনতায় লিপ্ত হতে বাধ্য করা হয়েছিল। বালিশের সঙ্গে সঙ্গম করতে বাধ্য করা হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে এমন পরিস্থিতি চলার পর ইউজিসির (UGC) র‌্যাগিং বিরোধী ইউনিটে ফোন করে পুরো ঘটনার কথা জানান। তারপরই তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেয় ইউজিসি।

[আরও পড়ুন: SSC নিয়োগ: জট খোলার চেষ্টায় অভিষেক, কেন পরিস্থিতি জটিল করছেন? বিরোধীদের প্রশ্ন কুণালের]

জানা গিয়েছে, ওই ইউনিটের তরফে মেডিক্যাল কলেজের ডিনকে ফোন করে ব্যবস্থা নিয়ে নির্দেশ দেয়। দায়ের করা হয় এফআইআর। তদন্তভার দেওয়া হয় পুলিশকে। এ প্রসঙ্গে মেডিক্যাল কলেজের ডিন ডা. সঞ্জয় দীক্ষিত বলেন, “কয়েকদিন আগে ইউজিসির হেল্পলাইনে ফোন করে র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। অভিযোগ পেয়েই র‌্যাগিং বিরোধী কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছিল। তারপরই কমিটির তরফে এফআইআর দায়ের করে। পুলিশকে চিঠিও দেওয়া হয়।”

Advertising
Advertising

বিষয়টি সম্পর্কে স্থানীয় থানার ইনচার্জ তেহজিব কাজি জানান, “এমজিএম কলেজে র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ পেয়েছি। এফআইআর দায়ের হয়েছে। র‌্যাগিংবিরোধী আইনে (Anti Ragging Act) ৮-১০ পড়ুয়াকে আটক করা হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: শান্তিনিকেতনের বাগানবাড়ি ‘অপা’র মালিক পার্থ ও অর্পিতাই, প্রকাশ্যে এল দলিল]

Advertisement
Next