Independence Day: ‘হর ঘর তিরঙ্গা’ প্রকল্পে সব রেলকর্মীর হাতে পতাকা, কোন ফান্ড থেকে খরচ? উঠল প্রশ্ন

05:33 PM Aug 09, 2022 |
Advertisement

সুব্রত বিশ্বাস: চলতি বছরের ১৫ আগস্ট ভারত ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসে (Independence Day) কেন্দ্রের বিশেষ কর্মসূচি ‘হর ঘর তিরঙ্গা’। পালিত হবে ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’। বিভিন্ন রেলে চলছে নানা অনুষ্ঠান। শুধু তাই নয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (PM Narendra Modi)নির্দেশে বিশেষ কাম্পেন হিসাবে ‘হর ঘর তিরঙ্গা’র প্রচার শুরু হয়েছে। এই অভিযানের অংশ হিসাবেই রেলওয়ে সব কর্মীকে পতাকা দেবে। রেলের (Rail) তরফে এই পতাকা দেওয়ার বিনিময়ে কর্মচারীদের বেতন থেকে বেশ কিছু টাকা কেটে নেওয়া হবে। রেলের এই সিদ্ধান্তে তুমুল হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে।

Advertisement

জানা গিয়েছে, রেলের কর্মচারীদের বেতন থেকে পতাকা প্রতি ৩৮ টাকা কেটে নেওয়া হবে। রেলওয়ে কর্মচারী ইউনিয়ন এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা শুরু করেছে। একটি বেসরকারি সংস্থা রেলওয়ে কর্মীদের জাতীয় পতাকা (National Flag) সরবরাহ করবে। সেই পতাকার দাম রাখা হয়েছে ৩৮ টাকা প্রতি পিস। রেলের কর্মচারীদের নগদ টাকা দিয়ে এই তিরঙ্গা কিনতে হবে না, তবে এই টাকা তাঁদের বেতন থেকে কেটে নেওয়া হবে। এক এক শাখার  রেলওয়েতে এই টাকা নেওয়া নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন পরিকল্পনা রয়েছে। বেতন থেকে টাকা কাটার কথা বললেও কেউ কেউ ‘স্টাফ বেনিফিট ফান্ড’ থেকে এই পতাকা কেনা হবে এই পাতাকা বলে জানিয়েছে। পূর্ব রেলের শিয়ালদহ ডিভিশন অবশ্য এই টাকা ডিভিশন ফান্ডের থেকে খরচ হবে বলে জানিয়েছে। ওই ডিভিশনের মুখপাত্র এসিএম (সিটি) হরেন্দ্রনাথ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ”কর্মীদের থেকে টাকা নেওয়া হবে না। এ জন্য ডিভিশনের ফান্ডে ১২ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু বিখ্যাত আম্পায়ার রুডি কার্টজেনের, প্রাণ গেল আরও তিন বন্ধুর]

 বেতন থেকে টাকা কেটে নেওয়া নিয়েই উত্তর মধ্য রেলওয়ে এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। বিভাগীয় নেতা চন্দন সিংয়ের মতে, এই পতাকাটি কর্মচারীদের বেনিফিট ফান্ড থেকে কর্মীদের দেওয়া হবে এবং পরে তাদের বেতন থেকে কেটে নেওয়া অর্থ ওই তহবিলেই স্থানান্তর করা হবে। বেতন থেকে টাকা কাটা উচিত নয় বলে তিনি জানান।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: Arpita Mukherjee: জেলেও ‘সেলেব’ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়! কাপড় কাচা, বিছানা পাতা সবই করছেন অন্য কয়েদিরা]

তবে পতাকা দেওয়ার জন্য বেতন থেকে টাকা কাটার বিষয় একেবারেই মানতে নারাজ রেলের কর্মচারীরা। পূর্ব রেলের মেনস ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক অমিত ঘোষ বলেন, ”স্টাফ বেনিফিট ফান্ড এই ধরনের খরচের জন্য নয়। তবে এখানে কোন ফান্ড ব্যবহার করা হবে, তা জানানো হয়নি। তাই বিষয়টি নিয়ে এখনই প্রতিবাদ করা হচ্ছে না।” 

Advertisement
Next