Advertisement

ওমিক্রন সংক্রমিত দেশ থেকে এলে বাধ্যতামূলক নিভৃতবাস, নয়া পাঁচ কোভিডবিধি জারি ভারতে

03:15 PM Nov 29, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নতুন আতঙ্কের নাম ‘ওমিক্রন’ (Omicron)। করোনা ভাইরাসের এই নতুন স্ট্রেন নিয়ে উদ্বিগ্ন গোটা বিশ্ব। চিন্তিত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO। গতকালই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন (Soumya Swaminathan) জানিয়েছেন, ওমিক্রনের জন্য ভারতে সতর্কবার্তা। উল্লেখ্য, আফ্রিকায় সন্ধান মেলার পর ইতিমধ্যে বিশ্বের একাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনার এই নতুন স্ট্রেন। এই পরিস্থিতিতে যে সব দেশে করোনা ভাইরাসের নয়া স্ট্রেন ওমিক্রনের হদিশ মিলেছে, সেই সব দেশ থেকে আসা যাত্রীদের জন্য নতুন পাঁচ কোভিডবিধি জারি করল ভারত। দেশের সবক’টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইতিমধ্যে পৌঁছে গিয়েছে এই নির্দেশিকা। 

Advertisement

নতুন পাঁচ কোভিডবিধি:

১) বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের নিজের সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে হবে সেল্ফ ডিকলারেশন ফর্মে। এইসঙ্গে আরটি পিসিআর (RT PCR) টেস্টের নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে হবে।

২) ঝুঁকিবহুল দেশ, যেমন দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা যাত্রীরা এদেশে পৌঁছনো মাত্র তাঁদের ফের আরটি পিসিআর টেস্ট হবে। করোনা পজিটিভ হলে তাঁদের নিভৃতবাসে থাকতে হবে। ওই ব্যক্তি নয়া স্ট্রেন ওমিক্রনে আক্রান্ত কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে। ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে তাঁকে আলাদা করে কঠোর নিভৃতবাসে রাখা হবে।

৩) দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দেশ থেকে আসা যাত্রীরা করোনা নেগেটিভ হলেও তাঁদের সাতদিন করে বাধ্যতামূলক নিভৃতবাসে থাকতে হবে। সাতদিন পর ফের করোনা পরীক্ষা হবে।

[আরও পড়ুন:  ‘ওমিক্রন’ আতঙ্কেও করোনার দাপট কমছে ভারতে, নিম্নমুখী সংক্রমণ, মৃত্যুর হার]

৪) অন্য দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রেও আরটি পিসিআর টেস্ট বাধ্যতামূলক। তাঁদের মধ্যে কেউ পজিটিভ হলে নিভৃতবাসে থাকতে হবে। পজিটিভ ব্যক্তি ওমিক্রনে আক্রান্ত কিনা খতিয়ে দেখবে প্রশাসন। সেই মতো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

৫) অন্য দেশ থেকে আসা যাত্রীরা করোনা নেগেটিভ হলেও তাঁদের উদ্দেশে বলা হয়েছে, কমপক্ষে দুই সপ্তাহ শরীরে কোনওরকম উপসর্গ দেখা দিচ্ছে কিনা তা নজর রাখতে হবে।

[আরও পড়ুন: ‘ওমিক্রনে’র বিপদ থেকে বাঁচাতে সক্ষম টিকার জোড়া ডোজ? ধন্দে চিকিৎসকমহল]

প্রসঙ্গত, দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন ওমিক্রনের সন্ধান মেলে প্রথমবার। পরে ওমিক্রনে আক্রান্তের হদিশ মেলে অস্ট্রেলিয়া, বেলজিয়াম, ব্রিটেন, কানাডা, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইজরায়েল, ইটালি, নেদারল্যান্ড ও বৎসোয়ানায়। এই পরিস্থিতে জাপান, ইজরায়েলের মতো একাধিক দেশ সীমান্ত সিল করে দিয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আফ্রিকার সাতটি দেশের সঙ্গে বিমান পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে ফ্রান্স। 

Advertisement
Next