নয়া আইনে বাড়তি চাপ গ্রাহকদের পকেটে! বিমার খরচ বাড়ল ২৪ শতাংশ

12:20 PM Jun 19, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পেট্রল, ডিজেল কিংবা রান্নার গ‌্যাসের (LPG) মূল‌্যবৃদ্ধি নিয়ে যখন দেশবাসী নাজেহাল তখন চুপিসারেই কখন টান পড়েছে অন‌্য পকেটটিতে, তা খেয়ালই করতে পারেনি আমজনতা। অথচ গত এক বছরে জীবন বিমা ছাড়া অন‌্যান‌্য বিমা খাতে খরচ বেড়েছে ২৪ শতাংশ। বিমা সংস্থাগুলির (Insurance Company) আয়ের হিসাব থেকেই মিলছে এই তথ‌্য। মে মাসে পেশ করা রিপোর্ট বলছে, গত এক বছরে বর্ধিত প্রিমিয়ামের কারণেই বিমা সংস্থাগুলির অর্থ সংগ্রহের পরিমাণ বেড়েছে ১৫,৪০৪ কোটি টাকারও বেশি।

Advertisement

জীবন বিমার থেকেও বর্তমান সময়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বাস্থ‌্য বিমা (Health Insurance) ও গাড়ির বিমা করানোর সংখ‌্যা অনেক বেশি। পরিসংখ‌্যানই এর পক্ষে সায় দেবে। আর সরকারি নথি বলছে, এই ধরনের বিমার উপরেই ঘুরপথে ব‌্যয়ভার বেড়েছে যার জেরে সাধারণ মানুষের পকেটে চাপ পড়ছে। এবং নিশ্চিতভাবেই গাড়ি এবং স্বাস্থ‌্যবিমার মতো খরচ কমানোর পথেও হাঁটতে পারছে না মানুষ। বিমা ক্ষেত্রে একটি কথা খুব প্রচলিত, ‘জীবন বিমায় বেঁচে থাকলে বিমা সংস্থার লাভ, মরে গেলে বিমাকারীর পরিবারের।’ কারণ, যতদিন বেঁচে থাকবেন একজন বিমাকারী ততদিন প্রিমিয়াম পাবে সংস্থা আর মারা গেলে বিমাকারীকে টাকা গুনে দিতে হবে তাদের। কিন্তু স্বাস্থ‌্য বা গাড়ি বিমার (Car Insurance) ক্ষেত্রে এই যুক্তি প্রযোজ‌্য নয়। নিজেদের প্রয়োজনেই বড় অঙ্কের প্রিমিয়াম গুনে সুরক্ষা সুনিশ্চিত করে মানুষ। সেই কারণেই বিমার প্রিমিয়ামের অঙ্ক বেড়ে গেলেও তা দেওয়ার পর্ব চালিয়ে যাওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: বাংলা আবাস যোজনার নাম বদল না করলে এক টাকাও নয়, রাজ্যকে চিঠি কেন্দ্রের]

এ বছরের মে মাসের পরিসংখ্যান বলছে, বর্ধিত প্রিমিয়ামের কারণে বিমা সংস্থাগুলির সংগ্রহের পরিমাণ বেড়েছে ১৫,৪০৪ কোটি। গত বছর মে মাস পর্যন্ত জমা পড়া বিমার অঙ্কের থেকে ২৪ শতাংশ বেড়েছে এই রোজগার। বিমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘আইআরডিএআই’ IRDAI-এর তরফে জানানো হয়েছে জীবন বিমা ছাড়া অন্যান্য বিমা ক্ষেত্রে খরচ প্রায় ২৪ শতাংশ বেড়েছে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘দিদিকে বলো’র অনুকরণ! এবার চাকরির দুর্নীতি খুঁজতে নয়া কর্মসূচি দিলীপ ঘোষের]

IRDAI-এর তথ‌্য বলছে, চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত, অর্থবর্ষের প্রথম দুই মাসেই ২৫টি সাধারণ বিমা সংস্থার আয় বেড়েছে ২২.৬২ শতাংশ, টাকার হিসাবে যা ৩৩,২২১.৭ কোটি। অপরদিকে, বেসরকারি ছ’টি বিমা সংস্থার আয় বেড়েছে ২৬.১৭ শতাংশ, টাকার অঙ্কে যা প্রায় ১,৭০৯ কোটি। গত অর্থবর্ষে মে মাস পর্যন্ত আয় ছিল ১০,৯৫৪ কোটি টাকা। এ বছর সেই টাকা প্রায় ১৩,৫৬৬ কোটি টাকা পার করেছে। কৃষিবিমা বাবদ আয় বেড়েছে ৪.৭৪ শতাংশ। ২০২১ সালের মে মাসে প্রিমিয়াম বাবদ সংগ্রহের অঙ্ক ছিল প্রায় ১২,৪২৪ কোটি টাকা। সাধারণ বিমাক্ষেত্রে বেসরকারিকরণের পথ প্রশস্ত করতে গত বছর বাদল অধিবেশনে ধ্বনি ভোটে বিল পাস করিয়েছিল নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) সরকার। তথ্য বলছে তার পর থেকেই সাধারণ বিমা পরিষেবার খরচ ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে অনেকটাই। ফলে নিঃশব্দে কখন কাটা যাচ্ছে পকেট, বুঝতেই পারছে না মানুষ।

Advertisement
Next