মদ, বালি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে খবর প্রকাশ্যে আনার ‘শাস্তি’? বিহারে গুলিতে খুন সাংবাদিক

01:54 PM May 24, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বালি মাফিয়া, সুরা কারবারিদের বিরুদ্ধে লাগাতার খবর প্রকাশ করায় ‘শাস্তি’র খাঁড়া নেমে এল বিহারের (Bihar) তরুণ সাংবাদিকের জীবনে। গুলিবিদ্ধ হয়ে খুন হলেন বেগুসরাইয়ের তরুণ সাংবাদিক (Journalist) সুভাষ কুমার মাতো। মাত্র ২৬ বছর বয়সে তাঁর এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ সেখানকার সাংবাদিক মহল। ধৃতরা এখনও গ্রেপ্তার না হওয়ায় ক্ষোভ আরও বাড়ছে। পুলিশের আশ্বাস, হত্যাকারীদের শনাক্ত করা গিয়েছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার করা হবে তাদের।

Advertisement

গত ২০ মে বেগুসরাইয়ের সাঁকোয়, নিজের গ্রামে এক বিয়েবাড়িতে গিয়েছিলেন সুভাষ। সেখান থেকে ফেরার পথেই ঘটে ঘটনাটি। অভিযোগ, বিয়েবাড়িতে মেয়েরা নাচছিলেন। সেখানে কয়েকজন যুবক গিয়ে অশালীন আচরণ করেন। সুভাষ তার প্রতিবাদ করেছিলেন। সেখানে ওই যুবকদের সঙ্গে তার বাদানুবাদ চলে। তারপর থেকেই তরুণ সাংবাদিককে টার্গেট করা হয়েছিল। ওইদিনই পরিবারের সঙ্গে রাতে ফেরার পথে সুভাষকে লক্ষ্য করে গুলি চলে বলে খবর। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, চারজন অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতী সুভাষকে গুলি করে। তাঁকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন: স্কুলে আসেন না, ১০ হাজারে প্রক্সি ভাড়া করে ৭০ হাজার টাকা বেতন পান প্রধান শিক্ষিকা!]

তবে সুভাষের এক বন্ধুর দাবি, তিনি লাগাতার নিজের এলাকার মদ কারবারি ও বালি মাফিয়াদের (Sand mafia) বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর খবর প্রকাশ্যে আনছিলেন। আর সেই কারণেই সুভাষকে টার্গেট করা হয়েছিল। এর মধ্যে পঞ্চায়েতের রাজনীতিও জড়িয়ে বলে উল্লেখ করেন ওই বন্ধু। যদিও বকরি এলাকার পুলিশ অফিসার হিমাংশু কুমার জানাচ্ছেন, এসব স্রেফ ভুল ধারণা। বিয়েবাড়িতে যুবকদের সঙ্গে বচসায় জড়ানোই কাল হয়েছে সাংবাদিক সুভাষের। তাই তাঁকে খুন হতে হল।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: পার্থ-পরেশ-অনুব্রতর সম্পত্তি কত? খতিয়ান চেয়ে আয়কর দপ্তরকে চিঠি পাঠাল সিবিআই]

কারণ যাই-ই হোক, এখনও দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার করতে না পারায় পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ বাড়ছে নিহতের বন্ধু ও পরিবারের। যদিও পুলিশের আশ্বাস, সেই রাতে যারা সুভাষকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছিল, তাদের সকলের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। দ্রুতই গ্রেপ্তার করা হবে। এটাই প্রথম নয়, দুর্নীতির বিরুদ্ধে খবর প্রকাশ্যে এনে আগেও প্রাণ খোয়াতে হয়েছে বিহারের বেশ কয়েকজন সাংবাদিককে। প্রতিবাদও হয়েছে ঢের। তবে তাতে যে সমস্যার সমাধান হয়নি, সুভাষের খুনই তার প্রমাণ। 

Advertisement
Next