ক্ষমতায় ফিরলে ‘সঠিক’এনআরসি, অসমের ইস্তাহারে ভ্রম সংশোধনের ইঙ্গিত বিজেপির

02:44 PM Mar 23, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কোনও প্রকৃত ভারতীয়ই নাগরিকত্ব হারাবেন না। কেবলমাত্র অনুপ্রবেশকারীদেরই চিহ্নিত করা হবে। সেইমতোই সংশোধন করা হবে এনআরসিতে (NRC)। অসমে (Assam) নির্বাচনের আগে এমনটাই দাবি করল বিজেপি (BJP)। গেরুয়া শিবিরের ইস্তাহারে এভাবেই উঠে এল বিতর্কিত এনআরসি প্রসঙ্গ। আগামী ২৭ মার্চ এই রাজ্যের সঙ্গে অসমেও শুরু হচ্ছে বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। তিন দফার ভোট শুরুর ঠিক আগে মঙ্গলবার নির্বাচনী ইস্তাহার প্রকাশ করল বিজেপি। গুয়াহাটিতে এক অনুষ্ঠানে ওই ইস্তাহার প্রকাশ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা (JP Nadda)।

Advertisement

মোট ১০টি প্রতিশ্রুতি রয়েছে বিজেপির ইস্তাহারে (BJP manifesto for Assam)। তারই অন্যতম এনআরসির সংশোধন। প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট প্রকাশিত হয়েছিল অসমের এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা। সেই তালিকায় বাদ পড়েছিল প্রায় ১৯ লক্ষ মানুষের নাম। তাঁদের মধ্যে অধিকাংশই বাংলাভাষী মুসলিম ও হিন্দু দুই ধর্মের মানুষ। তারপর থেকেই এই নিয়ে বিতর্ক চরমে ওঠে। অবশেষে ভোটের আগে এনআরসির তালিকা সংশোধনের কথা বলে বিজেপি আশ্বস্ত করতে চাইল রাজ্যের বাসিন্দাদের। জানিয়ে দিল, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনেই তালিকা চূড়ান্ত করা হবে। কোনও অনুপ্রবেশকারীই ছাড় পাবে না।

[আরও পড়ুন: কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের ডোজ নেওয়ার নিয়মে বদল! বড় ঘোষণা কেন্দ্রের]

এনআরসি সংশোধনের পাশাপাশি আরও ন’টি প্রতিশ্রুতি রয়েছে ইস্তাহারে। সেগুলি হল-

১) বন্যার কবল থেকে অসমের মানুষকে বাঁচাতে ‘মিশন ব্রহ্মপুত্রে’র সূচনা।
২) ৩০ লক্ষ মানুষকে মাসিক ৩ হাজার টাকা অর্থসাহায্য করতে অরুণোদয় প্রকল্পকে আরও বাড়ানো।
৩) সমস্ত নামঘরের জন্য বার্ষিক আড়াই লক্ষ টাকার সাহায্য।
৪) সরকারি স্কুলের মাধ্যমে সমস্ত শিশুকে শিক্ষাদান। অষ্টম শ্রেণি থেকে প্রত্যেকটি মেয়েকে সাইকেল।
৫) রাজ্যের সমস্ত মানুষের রাজনৈতিক অধিকার রক্ষার্থে সীমান্তরেখা নির্ধারণের গতি বাড়ানো।

[আরও পড়ুন: ইঞ্জেকশন নয়, এবার ট্যাবলেটই করোনার টিকা! নতুন সাফল্যের দাবি ভারতীয় সংস্থার]

৬) অসমকে ‘আত্মনির্ভর’ করে তুলতে সব রকম পদক্ষেপ করা হবে।
৭) দেশের মধ্যে সবথেকে দ্রুত কাজের সুযোগ বাড়ছে যে রাজ্যে, সেই অসমে তরুণদের জন্য আরও কর্মসংস্থান। ২ লক্ষ মানুষকে সরকারি চাকরি দেওয়া হবে। তাঁদের মধ্যে ১ লক্ষ চাকরি দেওয়া হবে ২০২২ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে। এছাড়াও বেসরকারি ক্ষেত্রে ৮ লক্ষ চাকরির প্রতিশ্রুতি।
৮) স্বামী বিবেকানন্দের নামে নতুন প্রকল্প। স্টার্ট আপগুলিকে উৎসাহ দেওয়া হবে। আগামী ৫ বছরে বার্ষিক ২ লক্ষ তরুণকে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি।
৯) সবাইকে জমির মালিকানার অধিকার দেওয়া হবে। পাট্টা প্রদান করে জমিহীনদের পাশে দাঁড়াবে বিজেপি।

Advertisement
Next