পুলিশের নির্মমতায় ট্রেনের চাকায় পা খোয়ালেন সবজি বিক্রেতা! বিতর্ক যোগীরাজ্যে

01:48 PM Dec 03, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফুটপাত দখল করে সবজি বিক্রির অপরাধে সবজি ভরতি ঝুড়ি পাশের রেললাইনে ফেলে দেয় পুলিশ। কষ্টের পয়সার মাল রেললাইন থেকে তুলে আনতে গিয়ে ট্রেনের চাকায় একটি পা খোয়ালেন যুবক সবজি বিক্রেতা। তবে দুর্ঘটনার পর পুলিশই তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করে। মর্মান্তিক ঘটনার পর উপস্থিত জনতা যুবকের যন্ত্রণার ভিডিও তুলতে ব্যস্ত ছিল। যদিও সাহায্যের জন্য আর্ত চিৎকার করছিল যুবক। উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অভিযুক্ত পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করেছে পুলিশ।

Advertisement

ঘটনাটি কানপুরের (Kanpur) সাহিব নগরের কল্যাণপুর এলাকার। সেখানে রেলট্রাকের সমান্তরাল চলে গিয়েছে জিটি রোড। ওই রাস্তার ফুটপাতে বসে সবজি বিক্রি করছিলেন আরসালান। এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, অভিযুক্ত দুই পুলশকর্মী আচমকা অত্যাচার শুরু করে আরসালানের উপরে। তাঁরা যুবককে ফুটপাত থেকে উঠে যেতে বলে। এমনকী লাঠি দিয়ে মারধর শুরু করে। অভিযোগ, এর পরেই কনেস্টবল রাকেশ কুমার সবজি ভরতি ঝুড়ি রেললাইনে ছুঁড়ে ফেলে দেয়। আরসালান ঝাঁপিয়ে পড়ে সবজিগুলি কুড়িয়ে আনতে যান। তখনই দুর্ঘটনা ঘটে।

[আরও পড়ুন: ‘একের বেশি বিয়ে নয়’, মধ্যপ্রদেশে ‘অভিন্ন দেওয়ানি বিধি’ চালুর পরিকল্পনা বিজেপির]

সেই সময় ছুটে আসা একটি ট্রেনে একটি পা কাটা পড়ে যুবকের। ভাইরাল ভিডিওতে (ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল) দেখা গিয়েছে, রেল লাইনে পড়ে রয়েছে এক পা কাটা যাওয়া যুবক। সমানে উৎসুক জনতা, অধিকাংশের হাতে মোবাইল ফোন। যুবক যন্ত্রণায় চিৎকার করছেন, সাহায্য চাইছেন। উৎসুক জনতা সেই যন্ত্রণাকে ফোনবন্দি করছে। যদিও কেউ এগিয়ে এসে তাঁকে সহায্য করছে না। এর মধ্যে দুই পুলিশকর্মীকে দেখা যায়। তাঁরা গুরুতর জখম যুবককে রেললাইন থেকে তুলে নিয়ে যান।

Advertising
Advertising

কানপুর পুলিশের এক কর্তা বিজয় ঢালি স্বীকার করেন পুলিশ দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ করেছে। বিজয় বলেন, “বিষয়টি প্রকাশ্যে আসামাত্র অভিযুক্ত রাকেশ কুমারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। দ্রুত ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। অনেকেই ঘটনার ভিডিও করে। সেই ভিডিও রেকর্ডিংয়ে সাহায্য নেওয়া হচ্ছে।”

[আরও পড়ুন: চিন সীমান্তের কাছে ভারত-মার্কিন সেনা মহড়া, বেজিংকে ‘নাক না গলানোর’ পরামর্শ আমেরিকার

এদিকে শুক্রবার দিল্লি-কানপুর নীলাচল এক্সপ্রেসে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। ট্রেনে জানালার ধারে বসা এক ব্যক্তির আচমকা মৃত্যু হয়। আচমকা একটি লোহার রড জানালার কাচ ভেঙে ঢুকে যায় ওই যাত্রীর গলায়। উত্তর-মধ্য রেলওয়ের প্রয়াগরাজ (এলাহাবাদ) ডিভিশনের দানওয়ার এবং সোমনা স্টেশনের মাঝামাঝি এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। রেলের মুখপাত্র জানিয়েছেন, দিল্লি থেকে রওনা হয়ে কানপুরে যাচ্ছিল ট্রেনটি। আচমকা দুর্ঘটনা ঘটে। 

Advertisement
Next