অঙ্কিতা প্রথম নয়, উত্তরাখণ্ডের বিজেপি নেতার রিসর্ট থেকে নিখোঁজ হন আরও এক তরুণী!

09:11 PM Sep 25, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অঙ্কিতা ভাণ্ডারী হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) বিজেপি (BJP) নেতা বিনোদ আর্যর (Vinod Arya) ছেলে পুলকিত। যদিও রবিবার গেরুয়া নেতা দাবি করেন, তাঁর সহজসরল ছেলে এমন কাণ্ড করতেই পারে না। যদিও পুলকিতের রিসর্ট থেকে আরও এক তরুণীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা সামনে আসছে। স্থানীয়দের দাবি, আট মাস আগে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হন প্রিয়াঙ্কা নামের আরও এক তরুণী। আজ অবধি তার সন্ধান মেলেনি।

Advertisement

জানা গিয়েছে, অঙ্কিতারই গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। পুলকিত আর্যর বনানতারা রিসর্টে কাজে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। বিট্টু ভাণ্ডারী নামের এক স্থানীয় যুবক প্রিয়াঙ্কার প্রসঙ্গটি প্রকাশ্যে আনেন। এখন প্রশ্ন উঠছে, প্রিয়াঙ্কার কী হল? তাহলে কি আট মাসে আগে অঙ্কিতার মতোই পরিণতি হয়েছিল প্রিয়াঙ্কার? যদিও সেই সময় পুলকিত দাবি করেছিলেন, ওই তরুণী রিসর্টের টাকাপয়সা এবং মূল্যবান জিনিস নিয়ে পালিয়ে গিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ভগৎ সিংয়ের নামে হবে চণ্ডীগড় বিমানবন্দর, মন কি বাতে ঘোষণা মোদির

উল্লেখ্য, পুলকিত আর্যর রিসর্ট থেকে ১৮ সেপ্টেম্বর নিখোঁজ হন অঙ্কিতা ভাণ্ডারী। উত্তরাখণ্ডের হৃষিকেশের কাছে বিজেপি নেতা বিনোদ আর্যর ছেলের রিসর্টে রিসেপশনিস্ট ছিলেন ১৯ বছরের তরুণী। অভিযোগ, রিসর্টের ম্যানেজার ও এক কর্মী মিলে অঙ্কিতাকে খুন করেছে। প্রায় দিন পাঁচেক নিখোঁজ থাকার পর হৃষিকেশের একটি খালের ধার থেকে অঙ্কিতার দেহ পাওয়া গিয়েছে। এই ঘটনার তদন্তের যত গভীরে যাচ্ছে, ততই প্রকাশ্যে আসছে অভিযুক্ত পুলকিতের কুকীর্তির নানা নমুনা। বিজেপি নেতার ছেলের ওই রিসর্টে বহু বেআইনি কাজ হত বলে পুলিশ দাবি করেছে।

জানা গিয়েছে, অঙ্কিতার (Ankita Bhandari) মতো তরুণী রিসেপশনিস্ট এবং রিসর্টের অন্যান্য মহিলা কর্মীদের বাধ্য করা হত অতিথিদের ‘স্পেশ্যাল সার্ভিস’ দিতে। অঙ্কিতাকেও পুলকিত অতিথিদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিল। কিন্তু অঙ্কিতা তাতে রাজি হননি। পুলকিতের চাপের পরই নিজের বান্ধবীকে তিনি মেসেজ করেন,’আমি গরিব হতে পারি কিন্তু মাত্র ১০ হাজার টাকার জন্য নিজেকে বিক্রি করে দিতে পারব না।’

Advertising
Advertising

আরও পড়ুন: RSS এবং মুসলিম মৌলবাদী সংগঠন PFI একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ! দাবি দিগ্বিজয় সিংয়ের]

প্রিয়াঙ্কার ঘটনার পাশাপাশি প্রকাশ্যে আসছে পুলকিতের আরও সব কুকীর্তির কথা। যেমন, একবার রিসর্টের এক কর্মী বেতন চেয়েছিলেন বলে তাঁকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে একটি চকোলেটের কারাখানায় বন্দি করে রেখেছিলেন পুলকিত। ২০২০ সালে কোভিড নিয়মবিধি ভঙ্গ করার অভিযোগ রয়েছে। ভ্রমণ পাস ছাড়া বদ্রিনাথ মন্দিরের রাস্তায় বেআইনি ভাবে ঢুকে পড়ার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। যদিও বিজেপি নেতা বলেছেন, তাঁর ছেলে “একদম সহজ-সরল। ও শুধু ওর কাজ নিয়ে থাকে। আমি আমার ছেলের বিচার চাই। সেই সঙ্গে নিহত তরুণীরও বিচার চাই।’’

Advertisement
Next