Advertisement

লখনউয়ে করোনায় মৃতদের চিতার সারির ভিডিও ভাইরাল! বিতর্ক এড়াতে শ্মশান ঘেরা হল টিন দিয়ে

06:38 PM Apr 16, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সারি সারি জ্বলছে চিতা। সেই চিতার ধোঁয়া ঘন হয়ে কুণ্ডলী পাকাচ্ছে আকাশে। উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) করোনা আক্রান্তদের মৃত্যুমিছিলের (Covid deaths) ‘জ্বলন্ত’ ছবি ফুটে উঠেছে এমনই এক ভাইরাল ভিডিওয়। গত কয়েকদিন ধরেই হু হু করে ছড়িয়েছে সংক্রমণ। সেই সঙ্গে বাড়তে শুরু করেছে মৃতের সংখ্যা। অভিযোগ উঠেছে, সরকার যা বলছে তার সঙ্গে মিলছে না বাস্তব পরিস্থিতি। সেই দাবিরই সপক্ষে যেন এক প্রকট উদাহরণ হয়ে উঠেছে লখনউয়ের ওই ভিডিও। এবার সমস্ত অভিযোগকে এড়িয়ে চলতে নয়া পদক্ষেপ করল যোগী সরকার। শ্মশানের চারপাশ ঢেকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হল নীল টিন দিয়ে। সেই সঙ্গে লিখে দেওয়া হল এখানে যে কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না। কেননা এটা করোনা আক্রান্তদের এলাকা।

Advertisement

এমন পদক্ষেপের নিন্দায় সরব হয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা। তিনি টুইট করে লিখেছেন, ”উত্তরপ্রদেশ সরকারকে একটা অনুরোধ। সময়, লোকবল, শক্তিক্ষয় করে এভাবে এই ট্র্যাজেডিকে লুকোতে চাওয়া নিরর্থক। অতিমারীর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করুন। সংক্রমণ রুখে প্রাণ বাঁচানোর চেষ্টা করুন। এটাই সময়ের দাবি।”

[আরও পড়ুন: দ্বিতীয়বারের জন্য করোনা আক্রান্ত কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা, সংক্রমিত দিগ্বিজয় সিংও]

প্রসঙ্গত, শুক্রবারই করোনা রুখতে নয়া পদক্ষেপ করেছে যোগী সরকার। এবার থেকে প্রতি রবিবার লকডাউন থাকবে গোটা রাজ্যে। কেবল সপ্তাহান্তের লকডাউনই নয়, সেই সঙ্গে মাস্ক না পরলে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে বলেও জানানো হয়েছে। যদি একই ব্যক্তি দ্বিতীয় বার জরিমানার মুখে পড়েন, সেক্ষেত্রে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে তাঁকে। এদিকে সংখ্যা লুকোনোর অভিযোগ উঠেছে মধ্যপ্রদেশেও। সেখানেও সরকারি হিসেবে মৃত্যুর সংখ্যার সঙ্গে বাস্তব পরিস্থিতির কোনও মিল থাকছে না। অভিযোগকে পক্ষান্তরে মেনে নিয়ে প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, সব সময় মৃতের সংখ্যার হিসেব রাখা যাচ্ছে না। তবে পরে সবটাই আপডেট করে দেওয়া হবে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন ২ লক্ষ ১৭ হাজার ৩৫৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ১১৮৫ জনের, যা বৃহস্পতিবারের তুলনায় প্রায় হাজার বেশি। দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় তৈরি হওয়া ভয়াবহ পরিস্থিতিতে নানা রকম পদক্ষেপ করছে রাজ্যগুলি। এবার সংক্রমণের শৃঙ্খলকে ভাঙতে মহারাষ্ট্রের নাসিকে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নোট ছাপা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: কোভ্যাক্সিন তৈরির অনুমতি পেল মহারাষ্ট্রের হফকিন ইনস্টিটিউট, মোদিকে ধন্যবাদ জানালেন উদ্ধব]

Advertisement
Next