ভূত তাড়ানোর নামে মেয়েকে বেধড়ক মার, মৃত্যু শিশুকন্যার, গ্রেপ্তার বাবা, মা ও কাকিমা

03:35 PM Aug 07, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) মর্মান্তিক মৃত্যু হল ৫ বছরের এক শিশুকন্যার। ওই শিশুকে হত্যার অভিযোগে তার বাবা, মা ও কাকিমা গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, ভূত ধরেছে মনে করে তন্ত্রমন্ত্র করে শিশুটিকে বেধড়ক মারধর করে বাবা, মা ও কাকিমা, তাতেই মৃত্যু হয় শিশুটির।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, শিশুকন্যা হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে শিশুর বাবা সিদ্ধার্থ চিমনে (৪৫), মা রঞ্জনা ও কাকিমা প্রিয়াকে (৩২)। পরিবারটি নাগপুর শহরের সুভাষ নগরের (Subhash Nagar) বাসিন্দা। সিদ্ধার্থের একটি ইউটিউব নিউজ চ্যানেল রয়েছে। সিদ্ধার্থ-রঞ্জনা ৫ ও ১৬ বছর বয়সি দুই কন্যা সন্তানের বাবা-মা। গত মাসে গুরু পূর্ণিমার দিন তাকালঘাট এলাকার একটি দরগায় যায় পরিবারটি। সিদ্ধার্থের দাবি, এর পর থেকেই অস্বাভাবিক আচরণ করতে শুরু করে তাঁর পাঁচ বছরের কন্যা।

[আরও পড়ুন: কং বিধায়কদের কাছ থেকে টাকা উদ্ধার কাণ্ড: ফের সিআইডিকে তদন্তে বাধা অসম পুলিশের]

সিদ্ধার্থ ও তাঁর স্ত্রীর ধারণা হয় ছোট মেয়েকে ভূতে ধরেছে। ভূত ছাড়ানোর জন্য শুক্রবার গভীর রাতে তন্ত্রমন্ত্র করে বাবা-মা ও কাকিমা। সেই সময়েই বেধড়ক মারধর করা হয় শিশুকন্যাকে। একের পর এক চর ও ঘুসির চোটে অজ্ঞান হয়ে যায় সে। পুলিশ একটি ভিডিও ক্লিপ পেয়েছে, সেখানে দেখা গিয়েছে, কিছু প্রশ্ন করা হচ্ছে শিশুকন্যাকে। সে উত্তর দিতে পারছে না, এরপরেই তাকে নির্মম ভাবে মারধর করা হচ্ছে। মারের চোটেই মাটিতে পড়ে যায় সে এবং জ্ঞান হারায়।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: গরুর সঙ্গে যৌনাচার! বিকৃতকাম যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের]

এরপর অজ্ঞান অবস্থাতেই শিশুটিকে তাকালঘাটের দরগায় নিয়ে যায় পরিবারটি। সেখানে পরিস্থিতির অবনতি হলে তাকে স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে ভরতি করে দেওয়া হয়। যদিও এরপরে পরিবারটি নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। তবে হাসপাতালের এক নিরাপত্তারক্ষীর পরিবারটিকে দেখে সন্দেহ হয়। ফলে সে তাদের গাড়ির ছবি তুলে রাখে। ওই ছবির সূত্র ধরেই অভিযুক্তদের খুঁজে পায় পুলিশ। এরপরেই শিশুটিকে হত্যার দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তার বাবা, মা ও কাকিমাকে। একাধিক ধারায় মামলা করা হয়েছে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে।

Advertisement
Next