‘লাভ জেহাদে’র ফাঁদে আদিবাসী মহিলারা! ‘রক্ষাকবচ’দিতে কড়া পদক্ষেপের পথে মধ্যপ্রদেশ

07:01 PM Dec 05, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শ্রদ্ধা ওয়ালকর (Shraddha Walkar) হত্যাকাণ্ডে শিক্ষা নিয়ে গোটা দেশে ‘লাভ জেহাদ’ (Love Jihad) বিরোধী আইন প্রণয়ণ করতে হবে। ক’দিন আগে এই দাবি তুলেছিল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (Vishwa Hindu Parishad)। এবার আদিবাসীদের বিরুদ্ধে ‘লাভ জেহাদ’ হচ্ছে বলে অভিযোগ করলেন খোদ মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান (Shivraj Singh Chouhan)। তাঁর মতে আদিবাসী মেয়েদের বিয়ে করে জমি কেড়ে নেওয়ার চক্রান্ত হচ্ছে। এই ষড়যন্ত্র ঠেকাতে আইনি ‘রক্ষকবচ’ আনার কথা জানালেন শিবরাজ।

Advertisement

সোমবার আদিবাসীদের একটি সভায় উপস্থিত ছিলেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। এদিন ছিল স্বাধীনতা সংগ্রামী তাতিয়া ভিলের জন্মজয়ন্তী। সেই উপলক্ষে সভাতে নিজের ভাষণে শিবরাজ সিং চৌহান বলেন, “প্রয়োজনে লাভ জেহাদ বিরোধী আইন আরও কঠোর করা হবে। যাতে সমস্ত অপরাধী উপযুক্ত শাস্তি পায়।” এরপর শিবরাজ বলেন, “অনেকেই আদিবাসী মেয়েদের বিয়ে করছেন। তাঁরা সম্পত্তির লোভে এই কাজ করছেন। যাঁরা সম্পত্তির লোভে আদিবাসী মহিলাদের বিয়ে করছেন তাঁদের শাস্তি দিতে ধর্মীয় স্বাধীনতা আইনকে আরও কঠোর করা হবে।”

[আরও পড়ুন: DA মামলা: রাজ্য-সহ সবপক্ষের হলফনামা চাইল সুপ্রিম কোর্ট]

উল্লেখ্য, হিন্দুত্ববাদীরা অভিযোগ করেন, বিয়ের নামে হিন্দু মেয়েদের ধর্মান্তকরণ করে মুসলিমরা। সাধারণত এই ঘটনাকে বোঝাতেই ‘লাভ জেহাদ’ শব্দজোট ব্যবহার করা হয়। এক্ষেত্রে সম্পত্তি লোভে আদিবাসী মেয়েদের বিয়ে করার ঘটনাকেও লাভ জিহাদ বলে উল্লেখ করলেন খোদ মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। যা ঠেকাতে ধর্মীয় অধিকার আইনকে আরও কঠোর করা হবে বলে জানালেন তিনি।

চলতি মাসেই ভিএইচপি দাবি করেছিল, শুধু দিল্লিতে গত ১০ বছরে লাভ জিহাদের অভিযোগ উঠেছে ৪২০টি। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুরেন্দ্র জৈন বলেন, “আফতাবের ২০ জন বান্ধবী ছিল। প্রত্যেকে হিন্দু। এর থেকেই স্পষ্ট যে পরিকল্পনা মাফিক কাজ করেছিল সে।” এই ধরনের ঘটনা রুখতে আগামী ২১ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর অবধি ‘ধর্ম রক্ষা’ কার্যক্রম চালাবে গেরুয়া দলটি। ভিএইচপি-র মহিলা শাখা লাভ জেহাদ বিরোধী সচেতনতা প্রচার চালাবে।

Advertising
Advertising

Advertisement
Next