Advertisement

পজিটিভ হওয়ার পরই বেপাত্তা ৩ হাজার করোনা আক্রান্ত, মাথায় হাত বেঙ্গালুরু প্রশাসনের

02:48 PM Apr 29, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কোভিড আতঙ্কে কাঁপছে দেশ। করোনার (Corona Virus) ‘সুনামি’ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে সরকার। এমন পরিস্থিতিতে আমজনতার গা ছাড়া মনোভাব বদলায়নি। যার নমুনা মিলল বেঙ্গালুরুতে (Bengaluru)। কোভিড পজিটিভ হওয়ার পরই শহর থেকে উধাও অন্তত তিন হাজার আক্রান্ত। মোবাইলে তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না বলে খবর।

Advertisement

করোনা সংক্রমণের নতুন হটস্পট কর্ণাটকের বেঙ্গালুরু। লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ। চলছে কোভিড পরীক্ষা। কিন্তু তার পরই বিপত্তি। প্রায় ৩ হাজার কোভিড আক্রান্ত বেপাত্তা। অফ করে রাখা হয়েছে তাঁদের মোবাইল ফোন। এমনকী, বাড়িতে গিয়েও তাঁদের হদিশ মিলছে না। তাঁদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। তবে এই প্রথমবার নয়, গত বছরও একই ঘটনা ঘটেছিল এই আইটি হাবে।

[আরও পড়ুন : আরও ভয়াবহ করোনা, সর্বকালীন রেকর্ড ভেঙে দেশে একদিনে আক্রান্ত প্রায় ৩ লক্ষ ৮০ হাজার]

ঘটনা প্রসঙ্গে কর্ণাটকের প্রতিমন্ত্রী তথা বিপর্যয় মোকাবিলা বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান আর অশোক জানিয়েছেন, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই তিন হাজার জন নিজেদের বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন। মোবাইলও অফ রয়েছে তাঁদের। তিনি আরও জানিয়েছেন, অনেকেই ভয়ে মোবাইল অফ করে দিচ্ছেন। এর পর শারীরিক অবস্থা প্রচণ্ড খারাপ হওয়ার পর ফোন খুলছেন। তখন তাঁদের আইসিইউতে ভরতি করতে হচ্ছে। হাসপাতালে বেডের সংকট দেখা দিচ্ছে। এর পরই ওই মন্ত্রীর আরজি, পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এলে আতঙ্কিত হবেন না। সঠিক চিকিৎসা হলে অধিকংশ করোনা আক্রান্তই সেরে যাচ্ছেন। তাই ভয় পেয়ে পালিয়ে যাবেন না। নয়তো এক একজন আক্রান্তকে খুঁজে বের করতে ১০ দিনের বেশি সময় লাগছে। ততদিনে বহু আক্রান্তের শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধের পরিসংখ্যান বলছে একদিনে কর্ণাটকে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৪০ হাজার। যার মধ্যে ২৯ হাজার জন বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা। তবু হুঁশ ফিরছে না শহরবাসীর।

[আরও পড়ুন : সেরাম কর্তা পুনাওয়ালাকে এবার ‘ওয়াই ক্যাটেগরি’র নিরাপত্তা, তৃতীয় দফার টিকাকরণের আগেই সিদ্ধান্ত]

Advertisement
Next