তিন বাহিনীর হয়ে সব চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা, দায়িত্ব নিয়ে প্রতিজ্ঞা দেশের নতুন সেনা সর্বাধিনায়কের

02:30 PM Sep 30, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কঠিন পরিস্থিতি, কঠিনতর চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জকে সঙ্গী করেই পথচলা শুরু করলেন দেশের নতুন সেনা সর্বাধিনায়ক (CDS) অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল অনিল চৌহান। শুক্রবার তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। এদিন সকালে বাবা সুনীল চৌহানকে সঙ্গে নিয়ে তিনি দিল্লির শহিদ স্মৃতি সৌধে গিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন। বলেন, ”দেশের সেনাবাহিনীর সর্বোচ্চ পদ সামলানোর জন্য আমাকে বেছে নেওয়া হয়েছে, তাতে আমি গর্বিত। তিন বাহিনীর কাজ একসঙ্গে সম্পন্ন করতে আমরা সর্বশেষ চেষ্টা করব। আমরা একসঙ্গে সমস্ত প্রতিকূলতার মোকাবিলা করব।” দীর্ঘ ৯ মাস পর দেশ পেল নতুন ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’কে। এর আগে সেনা সর্বাধিনায়ক ছিলেন জেনারেল বিপিন রাওয়াত (Gen. Bipin Rawat)। বিমান দুর্ঘটনায় তাঁর আকস্মিক মৃত্যুর পর পদটি ফাঁকাই ছিল। সেখানে স্থলাভিষিক্ত হলেন জেনারেল অনিল চৌহান। তিনি সেনা সচিব হিসাবেও কাজ করবেন।

Advertisement

দেশের প্রথম সেনা সর্বাধিনায়ক জেনারেল বিপিন রাওয়াতের জায়গায় পরবর্তী পদাধিকারীকে অভিষিক্ত করা কেন্দ্রের কাছে যথেষ্ট কঠিন কাজ ছিল। যোগ্য ব্যক্তিকে খুঁজে নিতে যথেষ্ট সময় দিতে হয়েছে। লেফটেন্যান্ট জেনারেল চৌহানকে এই গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানোর আগে সিডিএস নিয়োগের নিয়মে সংশোধন করতে হয়েছে কেন্দ্রকে। আগে ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ নিয়োগ করা হতো শুধু কর্মরত লেফটেন্যান্ট জেনারেলদের মধ্যে থেকে। কিন্ত জেনারেল রাওয়াতের প্রয়াণের পর সেই নিয়ম সংশোধন করা হয়। কেন্দ্র জানায়, শুধু কর্মরত লেফটেন্যান্ট জেনারেলরা নন, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেলরাও এই পদে বসতে পারবেন। শুধু তাঁদের বয়স ৬২ বছরের কম হতে হবে। সেই নিয়মেই অনিল চৌহান অবসরপ্রাপ্ত দেশের সেনা সর্বাধিনায়ক হলেন। তাঁর বয়স ৬১ বছর।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচনে ‘নাটক’ অব্যাহত, মনোনয়ন জমা দেবেন মল্লিকার্জুন খাড়গে!]

তিন সেনাবাহিনীর মধ্যে সমন্বয় সাধন থেকে শুরু করে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের ভার থাকে সিডিএসের উপর। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এহেন গুরুত্বপূর্ণ পদে অনিল চৌধুরীর অভিজ্ঞতাকে গুরুত্ব দিতে চাইছে প্রতিরক্ষামন্ত্রক (Ministry of Defenece)। লেফটেন্যান্ট জেনারেল চৌহান প্রায় ৪০ বছর ধরে সেনার সঙ্গে যুক্ত। কাশ্মীরে অনুপ্রবেশ রোখার ক্ষেত্রে বিশেষ অভিজ্ঞতা আছে গোর্খা রেজিমেন্টের অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল। প্রয়াত বিপিন রাওয়াতও গোর্খা রেজিমেন্টের দায়িত্বেই ছিলেন। এছাড়া ২০১৯ সালে পাকিস্তানের বালাকোটে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সময় DGMO-র (Director General of Military Operation)দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। সেসব অভিজ্ঞতাকে হাতিয়ার করেই শত্রুদেশকে সামলাতে তিন বাহিনীর সর্বময় অধিনায়ক হয়ে দাঁড়াচ্ছেন অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল অনিল চৌহান।

[আরও পড়ুন: পুজোর উপহার! দেউচা-পাঁচামি প্রকল্পে সরকারি প্যাকেজে মিলবে আরও আর্থিক সাহায্য]

শুক্রবার দেশের নতুন সিডিএস হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নেওয়ার পর দিল্লির সাউথ ব্লকের কার্যালয়ে পৌঁছন অনিল চৌহান। সঙ্গে ছিলেন বাবা সুনীল চৌহান। সেখানে গার্ড অফ অনার দেওয়া হয় নবনিযুক্ত সেনা সর্বাধিনায়ককে। তারপর তিনি জাতীয় স্মৃতি সৌধে গিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন। নতুন দায়িত্বভার গ্রহণের আগে পিতার আশীর্বাদ, তাঁর স্পর্শেই ভরসা রাখলেন সিডিএস অনিল চৌহান।

Advertisement
Next