Advertisement

বারাণসী–প্রয়াগরাজ হাইওয়ে প্রকল্পের সূচনা মোদির, কৃষি আইনের পক্ষেও করলেন সওয়াল

03:50 PM Nov 30, 2020 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোমবার বারাণসী–প্রয়াগরাজ (Varanasi-Prayagraj) হাইওয়ে প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন, ধর্মস্থলগুলিতে সড়ক ব্যবস্থা মজবুত করার উপর জোর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি বারাণসীর সেবক। তাই এই জায়গায় সংযোগ ব্যবস্থা মজবুত করার উপর জোর দিয়েছেন।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: ‘‌উপনির্বাচনে কোনও মুসলিমকে টিকিট নয়,’‌ মন্তব্য করে ফের বিতর্কে কর্ণাটকের বিজেপি নেতা]

এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সুগম সড়ক, মজবুত রেল ব্যবস্থা, বিমান পরিষেবা – এসব সাধারণ মানুষ, বিশেষ করে গরিব মানুষের জন্য অত্যন্ত লাভজনক। করোনা কালে পরিকাঠামো নির্মাণের এই প্রকল্পগুলি কর্মসংস্থান বাড়াতে যথেষ্ট সাহায্য করেছে। উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার খুব ভাল কাজ করছে। সেখানে পূর্বাঞ্চল থেকে বুন্দেলখণ্ড পর্যন্ত আধুনিক সড়কপথ তৈরি হচ্ছে। তিন, চার বছর আগে উত্তরপ্রদেশে মাত্র দু’টি বিমানবন্দর ছিল। অথচ আজ প্রায় ১২টি বিমানবন্দর আছে এই রাজ্যে।” এদিন, সড়ক প্রকল্পের উদ্বোধন ছাড়াও দেব দীপাবলী উৎসবেও অংশগ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর সঙ্গে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল থাকবেন।

মজবুত সড়ক পরিবহণ ব্যবস্থার উপর জোর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানান, ভাল সড়ক থাকলে লাভবান হন কৃষকরাও। এর ফলে কোল্ড স্টোরেজগুলিতে পণ্য দ্রুত পৌঁছে দেওয়া যায়। বিমানযোগেও পণ্য পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। বারাণসীর আম ইউরোপ যাচ্ছে। চন্দলির কালো চাল অস্ট্রেলিয়ায় রপ্তানি হচ্ছে। এই চাল কেজি প্রতি ৩০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে সমৃদ্ধি আসছে। অত্যাধুনিক পরিকাঠামো তৈরি হয়ে এর লাভ পাচ্ছেন চাষীরা। বিদেশে এই চলের দাম ৮৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ক্ষুদ্র চাষীদের সংগঠিত করে বড় শক্তিতে পরিণত করার চেষ্টা করছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী ফসল বীমা যোজনার ফলে দেশের প্রায় ৪ কোটি চাষী লাভবান হয়েছেন। এদিন, নয়া কৃষি আইনের সমর্থনেও জোরাল সওয়াল করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “সরাসরি বাজারে পণ্য বিক্রি করতে পারলে সেই পরিষেবার লাভ কেননেবে না চাষীরা।”

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

উল্লেখ্য, SCO বা সাংহাই কো–অপারেশন অর্গানাইজেশনের বৈঠকের আয়োজন করতে চলেছে ভারত (India)। ২০১৭ সালে SCO’‌র পূর্ণ সদস্যপদ লাভের পর প্রথমবারের জন্য বৈঠকটি আয়োজন করছে নয়াদিল্লি (New Delhi)। সোমবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেবেন সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিরা। তবে এদিনের বৈঠকে যোগ দেবেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। নিজের লোকসভা নির্বাচনী ক্ষেত্র বারাণসী (Varanasi) সফরের জন্যই এই বৈঠক তিনি এড়িয়ে গিয়েছেন বলেই খবর।

[আরও পড়ুন: আন্দোলনের ফাঁকেই গুরু নানকের পুজো, পুলিশকর্মীদের প্রসাদও খাওয়ালেন কৃষকরা]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next