তরুণীকে বন্দি করে ধর্ষণ! গুরুতর অভিযোগে এবার তদন্তের মুখে গুজরাটের মন্ত্রী

10:06 PM Jul 29, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তরুণীকে তুলে নিয়ে গিয়ে বন্দি করে ধর্ষণের (Rape) মতো গুরুতর অভিযোগ। নিজের স্ত্রীকে নিয়ে প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের দায়ের করা লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে গুজরাটের (Gujarat) মন্ত্রীর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করতে চলেছে পুলিশ। জেরার মুখে পড়তে পারেন গুজরাটের গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী মহামেদাবাদ অর্জুনসিং চৌহান। খেড়া জেলা পুলিশের ডিএসপি (DSP) এমনই জানিয়েছেন।

Advertisement

গুজরাটের হলদর্ভস গ্রামের প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান ডিএসপির কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এই মর্মে যে তাঁর স্ত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে বন্দি (Illegal confinement) করে রেখেছেন মন্ত্রী অর্জুনসিং চৌহান। শুধু তাইই নয়, ধর্ষণেরও শিকার তাঁর স্ত্রী। তাঁর বক্তব্য ছিল, ২০১৫ সালে তাঁর স্ত্রীর কাছে একটি চিঠি পাঠিয়ে অর্জুনসিং চৌহান জানান যে নির্বাচনে তালুকা পঞ্চায়েতের প্রার্থী হিসেবে তাঁকে বেছে নেওয়া হয়েছে। সেসময় তিনি জেলা বিজেপির প্রেসিডেন্ট ছিলেন। স্ত্রী ওই নির্বাচনে দাঁড়ান এবং জিতেও যান। তার পরের বছর থেকে স্ত্রীকে দলীয় বৈঠকের নামে বারবার ডেকে পাঠাতেন মন্ত্রী। এবং বাড়ি থেকে অনেক দূরের জায়গায় নিয়ে গিয়ে মজতেন যৌনতায়। শুধু তাই নয়, অভিযোগকারীর স্ত্রীকে অন্যান্য প্রভাবশালী নেতাদের শয্যাসঙ্গিনী হতেও বাধ্য করতেন।

[আরও পড়ুন: মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে সংসদে আলোচনায় রাজি মোদি সরকার, ‘বড় জয়’, দাবি বিরোধীদের]

করোনা কালে ওই মহিলার উপর অত্যাচার আরও বাড়তে থাকে। প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের অভিযোগ, স্ত্রী তাঁকে জানাতেন যে কীভাবে অর্জুনসিং চৌহান তাঁর উপর অত্যাচার চালাচ্ছে। লকডাউনের সময় কাজের নামে তাঁকে ডেকে নিজের বাড়িতে কার্যত বন্দি করে রাখেন বর্তমান মন্ত্রী। এবং চলত লাগাতার যৌন অত্যাচার। অভিযোগকারীর কথায়, ”আমি সব জানার পর স্ত্রীকে বলি যে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগ দায়ের করতে পুলিশে। কিন্তু ও রাজি হয়নি। আমাকে বুঝিয়েছিল যে অর্জুনসিং চৌহান এতটাই প্রভাবশালী যে পুলিশে অভিযোগ করলে গোটা পরিবারের বড় ক্ষতি করে দিতে পারে।”

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: টি-২০ ম্যাচ চলাকালীন ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল কাবুল স্টেডিয়াম! ভিডিও ভাইরাল]

কিন্তু নিজের স্ত্রীর উপর এত বড় অন্যায় হতে দেখে আর ভয়ে চুপ থাকতে পারেননি হলদর্ভস গ্রামের প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান। মাস দুই আগে স্ত্রী মন্ত্রীর বাড়ি থেকে পালিয়ে অন্য একটি গ্রামে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। এরপরই তিনি সোজা জেলার ডিএসপির কাছে গিয়ে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ জানান। আর তার ভিত্তিতেই ডিএসপি আশ্বাস দেন, মন্ত্রীর বিরুদ্ধ তদন্ত হবে। জানা গিয়েছে, অর্জুনসিং চৌহানের বিরুদ্ধে এমন গুরুতর অভিযোগের তদন্তের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ। এ বিষয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তাঁর কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

Advertisement
Next