ইন্টারনেটে ছড়াচ্ছে শিশু পর্নোগ্রাফি, দুষ্টচক্রকে রুখতে দেশজুড়ে CBI হানা

03:32 PM Sep 24, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নেটপাড়ায় শিশু পর্নোগ্রাফির (Child Porn) রমরমা রুখতে ২০১৯ সালে বিশেষ সেল গড়েছিল সিবিআই (CBI)। যদিও দুষ্টচক্রের কাজকর্ম পুরোপুরি বন্ধ করা যায়নি। এই অবস্থায় ইন্টারনেটে (Internet) শিশু পর্নোগ্রাফির দৌরাত্ম্য রুখতে শনিবার বড় পদক্ষেপ করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এদিন দেশের মোট ২০টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৫৬টি ঠিকানায় তল্লাশি অভিযান চালাল সিবিআই।

Advertisement

সিবিআই সুত্রে জানা গিয়েছে, ইন্টারপোলের নিউজিল্যান্ড (New Zealand Interpole) ইউনিট সম্প্রতি শিশু পর্নোগ্রাফি বিষয়ক বেশকিছু তথ্য ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে পাঠায়। এরপরেই শনিবারের হানাদারি। এই অভিযানের সাঙ্কেতিক নাম ছিল ‘অপারেশন মেঘ-চক্র’ (Megha Chakra)। যে চক্রগুলি নেটদুনিয়ায় ছড়িয়ে থাকে, তাদের চিহ্নিত করাই ছিল এই অভিযানের উদ্দেশ্য। সব সময় গোষ্ঠীতে নয়, একক ব্যক্তিও ইন্টারনেটে শিশু পর্নোগ্রাফি ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ করছে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ১৮ মাস ধরে স্বামীর দেহ ঘরে, সকাল হলেই দিতেন গঙ্গাজলের ছিঁটে, স্ত্রীর কাণ্ডে হতবাক পুলিশ]

অনলাইনে শিশু পর্নোগ্রাফি ছড়ানো নিয়ে একাধিক অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরেই শনিবার অভিযান চালায় সিবিআই। এর জন্য গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সাইবার নজরদারি চালিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এতে একাধিক মোবাইল ও কম্পিউটারের শিশু পর্নোগ্রাফি লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য মেলে। তার ভিত্তিতে ২০টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৫৬টি ঠিকানায় তল্লাশি অভিযান চালানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: খোদ প্রধানমন্ত্রী মোদির উপর হামলার ছক ছিল PFI-এর, বিস্ফোরক দাবি ইডির]

কয়েক বছর আগেই পর্নসাইটের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল নয়াদিল্লি৷ এদেশে বন্ধ হয়েছিল ৮২৭টি পর্ন সাইট। যার জেরে অলীক সুখ থেকে বঞ্চিত হতে হয় ভারতের লক্ষ লক্ষ পর্নপ্রেমীকে। এরপর ২০১৯ সালে চারশোটির বেশি ইউটিউব চ্যানেল (YouTube Channel) বন্ধ করে কেন্দ্র। অভিযোগ ছিল, সাধারণ ভিডিও-র নামে ওই চ্যানেলগুলিতে শিশুদের শোষণের ভিডিও দেখানো হত বা চাইল্ড পর্নগ্রাফি দেখানো হত। এমন পদক্ষেপের পরে, ‘শিশু যৌন নিগ্রহ এবং যৌন শোষণ বিরোধী’ সেলের নজরদারির পরেও শিশু পর্নোগ্রাফি ঠেকানো যাচ্ছে না। সেই কারণেই ফের অভিযান চালাল সিবিআই।

Advertisement
Next