ইউক্রেন যুদ্ধের জেরেই মূল্যবৃদ্ধি, ফের রেপো রেট বাড়ানোর ভাবনা রিজার্ভ ব্যাংকের

08:48 PM May 16, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মূল্যবৃদ্ধিতে নাভিশ্বাস উঠছে আমজনতার। গত কয়েক সপ্তাহে জ্বালানির দাম সেঞ্চুরি ছুঁয়েছে। রান্নার গ্যাসের দাম হাজার টাকা অতিক্রম করেছে। অন্যদিকে ডলারের নিরিখে টাকার পতন হয়েছে রেকর্ড হারে। ধস নেমেছে শেয়ার বাজারেও। এই অবস্থায় সোমবার আরও খারাপ খবর দিল স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া (State Bank of India)। তাদের বক্তব্য, পরিস্থিতি সামাল দিতে আগামী দিনে আরবিআই (RBI) আরও ০.৭৫ শতাংশ পর্যন্ত রেপো রেট বাড়াতে পারে। সেক্ষেত্রে ঋণগ্রহিতাদের সুদের হার আরও বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Advertisement

এদিন এসবিআইয়ের অর্থনীতিবিদরা জানিয়েছেন, দেশে মৃল্যবৃদ্ধির অন্যতম কারণ রাশিয়ান-ইউক্রেন যুদ্ধ (Russian-Ukraine War)। মূল্যবৃদ্ধির ৫৯ শতাংশ কারণই হল বর্তমান অস্থির আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি। এই অবস্থা সামাল দিতে চলতি মাসেই রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া আচমকা রেপো রেট, অর্থাৎ যে হারে স্বল্প মেয়াদে ব্যাংকগুলিকে ঋণ দেয়, সেই হার বাড়ায়। রিজার্ভ ব্যাংক এই ঋণদানের হার ০.৪০ শতাংশ থেকে ৪.৪০ শতাংশ করেছিল। সেই সময়ই জানা গিয়েছিল, এর প্রভাব পড়বে সাধারণ ঋণের সুদের হারে। এদিন এসবিআই জানাল, পরিস্থিতি অনুযায়ী আগামী আগস্ট মাসের মধ্যে রিজার্ভ ব্যাংক আরও ০.৭৫ শতাংশ রেট বাড়াতে পারে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: বারাণসীতে বঙ্গভবন বানাতে চায় রাজ্য, যোগী প্রশাসনের কাছে নিয়মকানুন জানতে চাইল নবান্ন]

এদিকে আজই স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া তাদের মার্জিনাল কস্ট অব ফান্ডস বেসড লেন্ডিং রেট বা এমসিএলআর (MCLR) ১০ বেসিস পেয়েন্ট বা ০.১ শতাংশ বাড়াল। এই নিয়ে গত দুই মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বার মেয়াদি ক্ষণদানের সুদের হার বাড়াল এসবিআই। এর ফলে এই ব্যাংকের ঋণগ্রহিতাদের ইএমআইয়ের পরিমাণ আরও বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: বন্ধ হোক ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলসে’র মতো ছবি, পণ্ডিতদের উপর হামলা নিয়ে তোপ ফারুক আবদুল্লার]

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুতে রিজার্ভ ব্যাংকের রেপো রেট বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরই শেয়ার বাজারে বড়সড় ধস নামে। নিমেষে ১৩০০ পয়েন্ট নেমে যায় শেয়ার বাজারের সূচক। শেয়ার বাজারের হিসাব বলছে ওইদিন বিগত ৮ সপ্তাহের মধ্যে সবচেয়ে রক্তাক্ত দিনের সাক্ষী হয় দালাল স্ট্রিট। অথচ, LIC’র আইপিও আসার দিন শেয়ার বাজার চাঙ্গা হওয়ারই কথা ছিল।

Advertisement
Next