৩৮ বছর ধরে ছিলেন নিখোঁজ, স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে সিয়াচেনে উদ্ধার জওয়ানের দেহ 

09:03 PM Aug 14, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বাধীনতার ৭৫ বছর, ‘অমৃত মহোৎসব’ (Azadi ka Amrit Mahotsav) পালিত হচ্ছে গোটা দেশজুড়ে। এর মধ্যেই এল একইসঙ্গে মন ভাল ও খারাপ করা এক সংবাদ। ৩৮ বছর পর সিয়াচেন হিমবাহের (Sachen Glacier) একটি পুরনো বাঙ্কার থেকে উদ্ধার হয়েছে এক নিখোঁজ জওয়ানের দেহ। শহিদের দেহাবশেষ তাঁর পরিবারকে ফিরিয়ে দেবে ভারতীয় সেনা। সম্মানের সঙ্গে জওয়ানের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Advertisement

গত ১৩ আগস্ট সিয়াচেন হিমবাহের একটি পুরনো বাঙ্কার থেকে উদ্ধার হয়েছে লান্স নায়েক চন্দ্র শেখরের (Lance Naik Chandra Shekhar) দেহাবশেষ। ১৯৮৪ সালের ভারতীয় বাহিনীর অপরেশন মেঘদূতের অংশ ছিলেন তিনি। কুমায়ূন রেজিমেন্টকে (Kumaon Regiment) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল হিমবাহের সুবিধাজনক পয়েন্ট ৫৯৬৫ দখলে রাখতে, যেদিকে চোখ ছিল পাকিস্তানি সেনার। কুমায়ূন রেজিমেন্টের সদস্য ছিলেন লান্স নায়েক চন্দ্র শেখর। সেনার অভিযানের মধ্যেই ২৯ মে রাতে ভয়ংকর তুষারপাত হয়। ওই প্রাকৃতিক দুর্যোগে মৃত্যু হয় ১৪ জন ভারতীয় সেনার। নিখোঁজ হন ৫ জন।

[আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসে পাক মদতে নাশকতার ছক? উত্তরপ্রদেশে পুলিশের জালে জইশ জঙ্গি]

৩৮ বছর পর গত ১৩ আগস্টে ১৬ হাজার ফুট উচ্চতায় হিমবাহের একটি পুরনো ব্যাঙ্কার থেকে উদ্ধার হয়েছে লান্স নায়েক চন্দ্র শেখরের দেহাবশেষ। পাশেই পড়েছিল সেনার নম্বর প্লেট। তা দেখেই বোঝা গিয়েছে এই দেহাবশেষ চন্দ্র শেখরের। এক সেনা আধিকারিক জানান, চলতি গ্রীষ্মে হিমবাহের বরফ গলার পর সেনার পেট্রলিংয়ে ওই ব্যাঙ্কারের খোঁজ মেলে। সেখানেই পাওয়া গিয়েছে লান্স নায়েকের দেহবাশেষ।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: সঙ্গে ডজনখানেক পাসপোর্ট, বিভিন্ন মন্ত্রকের রাবার স্ট্যাম্প, দিল্লিতে ধৃত দুই বাংলাদেশি]

এই ঘটনায় এক করুণ অপেক্ষার অবসান হল লান্স নায়েকের ৬৫ বছরের স্ত্রীর। সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, সসম্মানে শহিদ জওয়ানের দেহাবশেষ তুলে দেওয়া হবে পরিবারের হাতে। কুমায়ূন রেজিমেন্টের প্রাক্তন জওয়ানের দুই কন্যাও রয়েছে। স্ত্রী ও কন্যারা জানতেন, পরিবার প্রিয় সদস্যটি আর ফিরবেন না। কিন্তু ফিরলেন! তবু এভাবে ফিরবেন তা জানা ছিল না। তাঁদের মন খারাপ আর মন ভাল গুলিয়ে গেল দেশের ৭৫তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে। 

Advertisement
Next