শিশির অধিকারীর সাংসদ পদ খারিজের দাবি, প্রিভিলেজ কমিটিতে বক্তব্য জানাল তৃণমূল

04:25 PM Jul 29, 2022 |
Advertisement

সোমনাথ রায়, নয়াদিল্লি: একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির নির্বাচনী জনসভায় অমিত শাহের সঙ্গে ছিলেন কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী (Sisir Adhikary)। এই ‘সারকামস্ট্যানশিয়াল এভিডেন্স’-এর উপর ভিত্তি করেই খারিজ করা হোক কাঁথি লোকসভা (LS)কেন্দ্রের সাংসদের পদ। বৃহস্পতিবার সংসদের প্রিভিলেজ কমিটির কাছে এই বক্তব্যই রেখেছেন লোকসভায় তৃণমূল কংগ্রেস দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় (Sudip Banerjee)। রাজনৈতিক মহলের খবর এমনই। পালটা শিশির অধিকারীর বক্তব্য লিখিত আকারে জমা দেওয়া হয়েছে প্রিভিলেজ কমিটির চেয়ারম্যানের কাছে।

Advertisement

২০২১-এ পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের আগে নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহদের প্রচার সভায় একই মঞ্চে দেখা গিয়েছিল শিশির অধিকারীকে। প্রধানমন্ত্রীর সভা সরকারি অনুষ্ঠান হলেও অমিত শাহের সভাটি ছিল পুরোপুরি নির্বাচনী জনসভা। যদিও শিশির অধিকারীর বক্তব্য, তিনি কখনওই অন্য কোনও দলের পতাকা হাতে নেননি। তবে পদত্যাগ না করে অন্য দলের নির্বাচনী প্রচার মঞ্চে উপস্থিতিই দলবিরোধী আইন মেনে তাঁর সদস্য পদ খারিজের পক্ষে যথেষ্ট, এমনটাই দাবি করছে তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)।

[আরও পড়ুন: ‘যারা ষড়যন্ত্র করেছে, জানতে পারবেন’, হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য পার্থর]

গত ২১ জুলাই লোকসভার তরফে ডেপুটি সেক্রেটারি তৃণমূলের সংসদীয় দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি পাঠান। তাতে জানানো হয়, ২৮ তারিখ এই সংক্রান্ত  আবেদনের শুনানি। তাতে হাজির থাকতে বলা হয় সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। শিশির অধিকারী সম্পর্কে তৃণমূলের বক্তব্য শোনার জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছিল। তিনি প্রিভিলেজ কমিটির সামনে উপস্থিত থেকে শিশিরবাবুকে নিয়ে দলের বক্তব্য পেশ করেন। 

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে মুখরক্ষার চেষ্টা তৃণমূলের! পার্থ ইস্যুতে সরব অপর্ণা সেন]

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের কথা উল্লেখ করে দলবিরোধী আইন মোতাবেক শিশির অধিকারীর সাংসদ পদ খারিজের দাবি করেছেন লোকসভায় তৃণমূলের দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, এমনটাই শোনা যাচ্ছে। সূত্রের আরও খবর, এই সময়ে কমিটির চেয়ারম্যান তাঁকে বলেন, ইতিমধ্যেই শিশির অধিকারী এই বিষয়ে তাঁর বক্তব্য লিখিত আকারে জানিয়েছেন। চেয়ারম্যান জানান, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে সেই প্রতিলিপিটি পাঠিয়ে দেওয়া হবে। তা দেখে নিয়ে পালটা নিজেদের বক্তব্য জানাতে পারবেন তৃণমূলের সংসদীয় দলনেতা।

Advertisement
Next