উত্তরপ্রদেশে জলে ভাসছে ‘রাম’নাম লেখা পাথর! ভাইরাল ভিডিও ঘিরে শোরগোল

02:53 PM Aug 02, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জলে পাথর পড়লে তা ডুবে যাওয়াই দস্তুর। কিন্তু যদি সেই পাথরে খোদাই করা থাকে, রামচন্দ্রের নাম, তবে কি অতিপ্রাকৃতিক কিছু ঘটতে পারে? সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর ফের উঠেছে সেই প্রশ্ন। যেখানে দেখা যাচ্ছে রামের নাম লেখা একটি ভারী পাথর জলে ভাসছে!

Advertisement

ঘটনা যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) মইনপুর জেলার। গত ৩০ জুলাই সেখানকার এক গ্রামের বাচ্চারা ইসান নদীতে মাছ ধরতে গিয়েছিল। তখনই তারা দেখতে পায় নদীতে ভাসতে একটি পাথর। জানা গিয়েছে, পাথরটির ওজন অন্তত ৫.৭ কেজি। সেটি তুলে আনে তারা। পরবর্তীতেও পরীক্ষা করে দেখা যায়, জলে রাখলে সেটি কোনওভাবেই ডুবছে না। স্থানীয়দের দাবি, এই পাথরের সঙ্গে রাম সেতুর কোনও যোগাযোগ রয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘রাগ ছিল, জুতো মেরে শান্তি পেয়েছি’, ESI হাসপাতালে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের উপর হামলা মহিলার]

Advertising
Advertising

‘রামায়ণ’ কাব্যগ্রন্থে উল্লেখ রয়েছে এই রাম সেতুর (Ram Setu)। কথিত আছে, বারণের লঙ্কা থেকে সীতাকে ফেরানোর জন্য রামেশ্বর থেকে লঙ্কা পৌঁছতে বানর সেনারা পাথর দিয়ে একটি সেতু তৈরি করেছিল। প্রতিটি পাথরে শ্রী রামের নাম খোদাই করা হয়। তাতেই ভাসতে থাকে পাথরগুলি। সে নিয়ে বলিউডে ছবিও তৈরি করা হচ্ছে। মইনপুরের বাসিন্দাদের দাবি, ইসান নদীতে যে পাথর পাওয়া গিয়েছে, তা রাম সেতুরই অন্যতম পাথর।

ওই গ্রামের নীতীন পাণ্ডে বলে দেন, “হ্যাঁ, সত্যিই এমন একটা পাথর নদী থেকে পাওয়া গিয়েছে। যেখানে রাম নাম খোদাই করা ছিল। আমরা আপাতত সেটি বাড়িতে এনে রেখেছি। অনেকের মতে, এর সঙ্গে রামেশ্বরের যোগ আছে। তবে সে দাবি কতখানি সত্যি, তা খতিয়ে দেখা হবে।” এখানেই শেষ নয়, জানা গিয়েছে স্থানীয়দের অনেকেই এলাকার মন্দিরে পাথরটি প্রতিষ্ঠা করতে চাইছেন। তাঁদের বিশ্বাস, এই পাথরে ঈশ্বরিক ক্ষমতা রয়েছে। যদিও জেলাপ্রশাসকদের তরফে এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

[আরও পড়ুন: কলকাতাতেই হাতবদল ৪৯ লক্ষ টাকা, সদর স্ট্রিটের হোটেল ছ’মিনিট ছিলেন ঝাড়খণ্ডের ৩ কং বিধায়ক]

Advertisement
Next