হায়রে সমাজ! শ্রদ্ধার খুনে বিচারের মঞ্চেই হাতাহাতিতে জড়ালেন পুরুষ ও মহিলা, ভাইরাল ভিডিও

08:25 PM Nov 29, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লিন ইন পার্টনার আফতাবের হাতে শ্রদ্ধা ওয়ালকারের খুন নিয়ে উত্তাল গোটা দেশ। নিহত শ্রদ্ধার (Shraddha Walkar) সুবিচারের দাবিতে সরব আমজনতা। সেই দাবি জানাতে গিয়েই এক মহিলার হাতে জুতোপেটা খেলেন এক ব্যক্তি। দিল্লি (Delhi) সংলগ্ন ছত্তরপুর এলাকার এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়। পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ জানিয়েছিলেন ওই মহিলা। কিন্তু সুবিচার না পেয়েই ওই ব্যক্তিকে আক্রমণ করেন মহিলা। অন্যদিকে, দীর্ঘদিন ধরে পরিকল্পনা করেই শ্রদ্ধাকে খুন করা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement

ঠিক কী ঘটেছিল? জানা গিয়েছে, হিন্দু একতা মঞ্চ নামে একটি সংগঠনের তরফে ‘বেটি বাঁচাও মহাপঞ্চায়েত’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। সেখানেই জুতোপেটার ঘটনাটি ঘটে। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, অনুষ্ঠান চলাকালীন মঞ্চে উঠে আসেন অজ্ঞাতপরিচয় ওই মহিলা। নীল ওড়নায় মুখ ঢেকে থাকার জন্য তাঁকে চিনতে পারেননি কেউই। মাইকের সামনে এসে কিছু বলতে শুরু করেন তিনি।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ব়্যাপিডোয় ওঠাই কাল! তরুণী যাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ চালক ও তাঁর সঙ্গীর বিরুদ্ধে!]

ওই মহিলার যেটুকু কথা শোনা গিয়েছে, সেখানে পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ এনেছেন তিনি। মঞ্চে উঠে ওই মহিলা বলতে শুরু করেন, “গত পাঁচ দিন ধরে পুলিশ আমাকে হেনস্তা করছে। কেউ আমার কোনও কথা শুনছে না।” এইটুকু বলার পরেই মঞ্চে উপস্থিত এক ব্যক্তি ওই মহিলাকে থামিয়ে দিতে চেষ্টা করেন। তাতেই রেগে গিয়ে পায়ের জুতো খুলে ওই ব্যক্তিকে মারতে থাকেন মহিলা। উপস্থিত জনতার কয়েকজন এসে মহিলাকে শান্ত করে মঞ্চ থেকে নামিয়ে দেন।

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, মঞ্চে উপস্থিত ব্যক্তির ছেলের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছে ওই মহিলার মেয়ে। পুলিশের কাছে এই বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেও সুরাহা হয়নি। তবে স্থানীয় পুলিশের দাবি, এই বিষয়ে কোনও অভিযোগ পায়নি তারা। অনুষ্ঠানের মঞ্চে যে ঘটনা ঘটেছে, সেই নিয়েও পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলেই জানা গিয়েছে।

দিল্লি পুলিশের সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে পরিকল্পনা করেই শ্রদ্ধাকে খুন করা হয়েছিল। জেরার সময়ে আফতাব জানিয়েছে, তার সঙ্গে ব্রেক আপ করে দিতে চেয়েছিলেন শ্রদ্ধা। এই কথা জানার পরেই খুনের পরিকল্পনা করতে থাকে আফতাব। শেষ পর্যন্ত ১৮ মে শ্রদ্ধাকে খুন করে সে।

[আরও পড়ুন:এয়ার ইন্ডিয়ার সঙ্গে মিশে যাচ্ছে ভিস্তারা , ভারতের বৃহত্তম এয়ারলাইনস হওয়ার দৌড়ে টাটা]

Advertisement
Next